কিডন্যাপারের হাত থেকে দেওরকে বাঁচালেন ‘শ্যুটার’ বৌদি !

কিডন্যাপারের হাত থেকে দেওরকে বাঁচালেন ‘শ্যুটার’ বৌদি !
Photo: ANI

পেশায় জাতীয় শ্যুটার। এখন কোচিং করান। আর সেই শ্যুটিংয়ের জেরেই দেওরের প্রাণ বাঁচালেন আয়েশা ফলক। দিল্লির ভজনপুরার ঘটনায় বন্দুকবাজ বৌয়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ সকলেই।

  • Share this:

#কলকাতা: পেশায় জাতীয় শ্যুটার। এখন কোচিং করান। আর সেই শ্যুটিংয়ের জেরেই দেওরের প্রাণ বাঁচালেন আয়েশা ফলক। দিল্লির ভজনপুরার ঘটনায় বন্দুকবাজ বৌয়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ সকলেই।

সামনে ২ দুষ্কৃতী। পার্স থেকে লাইসেন্সড পিস্তল বের করে গুলি চালাতে একটুও হাত কাঁপল না। যেন বিশ্বাস করতে পারছেন না আয়েশা ফলক। বৃহস্পতিবার রাত একটায় দেওর আসিফের মোবাইল থেকে ফোন আসে। প্রথমে কেউ গুরুত্ব দেননি। কিন্তু ক্রমে বোঝা গেল, দেওড়কে অপহরণ করা হয়েছে। পুলিশকে জানাতে দেরি করেননি আয়েশা ও তাঁর স্বামী ফলক শের আলম। একটু ভয় পেলেও নিজেকে সামলে নেন আয়েশা। প্রায় পুলিশের সঙ্গে সঙ্গেই পৌঁছন শাস্ত্রী পার্কে। কিন্তু পুলিশের উপস্থিতি জানতে পেরে সেখান থেকে পালায় দুই অভিযুক্ত মহম্মদ রফি ও আকাশ।

তাদের তাড়া করতে করতে আয়েশারা পৌঁছন ভজনপুরার একটি শুনশান পার্কে। ফলো করা হচ্ছে। ভয়ে পেয়ে গাড়ি থামায় দুই অভিযুক্ত। গাড়ি থামতেই নিজেকে কোনওরকমে তাদের হাত ছাড়িয়ে পালাতে যায় আসিফ। তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় দুই অভিযুক্ত। পালটা নিজের লাইসেন্সড পিস্তল থেকে গুলি ছোঁড়েন আয়েশা। একজনের হাতে ও একজনের পায়ে গুলি লাগে।

তদন্তের স্বার্থে পুলিশ আয়েষার পিস্তলটি বাজেয়াপ্ত করেছে। ২ জনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে। আয়েষার কৃতিত্বকে কুর্নিশ জানাতে এতটুকুও কার্পণ্য করছেন না পুলিশ কর্তারা। প্রশংসায় পঞ্চমুখ তাঁর পরিবার, প্রতিবেশীরা। সকলের মুখে একটাই কথা - কেয়া বাত !

First published: 06:12:57 PM May 28, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर