corona virus btn
corona virus btn
Loading

মঙ্গলসূত্র বন্ধক দিয়ে স্বামীর শেষকৃত্যের সিদ্ধান্ত বিধবা স্ত্রীর, ৫ লাখ টাকা দিল কর্নাটক সরকার

মঙ্গলসূত্র বন্ধক দিয়ে স্বামীর শেষকৃত্যের সিদ্ধান্ত বিধবা স্ত্রীর, ৫ লাখ টাকা দিল কর্নাটক সরকার
প্রতীকী চিত্র ।

কর্নাটকের উমেশ হাদাগাল্লি ছিলেন অ্যাম্বুলেন্স চালক । তিনি নিজে হৃদরোগে আক্রান্ত । কিন্তু তা সত্ত্বেও করোনা যুদ্ধে একেবারে প্রথম সারিতে দাঁড়িয়ে দিনরাত এক করে নিজের কাজ করে গিয়েছেন তিনি ।

  • Share this:

#কর্নাটক: দেশ লড়ছে করোনার বিরুদ্ধে । একদিকে যখন সংক্রমণ ছড়াচ্ছে হু হু করে, তখনও দাঁতে দাঁত চিপে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন করোনা যোদ্ধারা । কখনও বাড়ি ফেরা হচ্ছে না দিনের পর দিন, কখনও দেখা হচ্ছে না পরিবারের সঙ্গে । তবু লড়াইয়ের ময়দানে এতটুকু হার স্বীকার করছেন না তাঁরা । দেশের ১৩৩ কোটি মানুষ আজ গর্বিত তাঁদের নিয়ে, যাঁরা নিজের প্রাণের তোয়াক্কা করেননি । কেউ লকডাউনে মানুষের পাশে থেকেছেন, কেউ মানুষকে শুশ্রুষা করে সারিয়ে তোলায় ব্রতী হয়েছেন, কেউ বা অভুক্তের মুখে তুলে দিয়েছেন অন্ন ।

কর্নাটকের উমেশ হাদাগাল্লি ছিলেন অ্যাম্বুলেন্স চালক । তিনি নিজে হৃদরোগে আক্রান্ত । কিন্তু তা সত্ত্বেও করোনা যুদ্ধে একেবারে প্রথম সারিতে দাঁড়িয়ে দিনরাত এক করে নিজের কাজ করে গিয়েছেন তিনি । গত ২৭ মে অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে বেরিয়ে শরীরটা ভাল লাগছিল না । বুকে ব্যথা অনুভব করছিলেন তিনি । ফোনে স্ত্রী’কে জানান সে কথা । স্ত্রী জ্যোতি স্বামীকে স্থানীয় রামদূর্গা হাসপাতালে নিয়ে যান । সেখান থেকে উমেশকে ধারওয়াদে স্থানান্তরিত করা হয় । কিন্তু সেখানে যাওযার পথে রাস্তাতেই মৃত্যু হয় উমেশের ।

পরিবারের একমাত্র রোজগেরে মানুষটা চলে যেতেই অথৈ সাগরে পড়েন জ্যোতিদেবী । হাতে টাকা নেই । স্বামীর শেষকৃত্য আটকে যায় । শেষ পর্যন্ত নিজের মঙ্গলসূত্র বন্ধক রেখে টাকা জোগাড়ের চেষ্টা শুরু করেন সদ্য বিধবা স্ত্রী । এই ঘটনার কথা সরকারের কানে পৌঁছয় । উমেশের পরিবারকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসে কর্নাটক সরকার । মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদুরাপ্পা মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ তহবিল থেকে জ্যোতির হাতে তুলে দেন ৫ লাখ টাকার অর্থসাহায্য । এমনকি ফোনে জ্যোতিদেবীর সঙ্গে কথাও বলেন মুখ্যমন্ত্রী ।

Published by: Simli Raha
First published: June 2, 2020, 10:34 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर