corona virus btn
corona virus btn
Loading

কেন্দ্রকে নিজেদের সংশোধিত রেড জোনের লিস্ট পাঠাল পশ্চিমবঙ্গ

কেন্দ্রকে নিজেদের সংশোধিত রেড জোনের লিস্ট পাঠাল পশ্চিমবঙ্গ
Photo- PTI

কেন্দ্রের হিসেবে পশ্চিমবঙ্গে রেড জোনের জেলা ১০ টি রাজ্য সরকারের মতে সেটি ৪

  • Share this:

#: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পশ্চিমবঙ্গ সরকার কেন্দ্রের পাঠানো রাজ্যের রেড জোন নিয়ে একমত নয় ৷ তাই কেন্দ্রকে নিজেদের লিস্ট পাঠাল পশ্চিমবঙ্গ ৷ কোভিড ১৯-র হটস্পট বলে কেন্দ্রীয় সরকার যে রেড জোনের লিস্ট করেছিল তাতে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন এলাকার নাম ছিল ৷

কেন্দ্র যে সব কারণের ভিত্তিতে কোনও এলাকাকে, রেড, অরেঞ্জ, গ্রিন জোনে ভাগ করেছিল তার সঙ্গ সহমত নয় রাজ্য সরকার ৷ পশ্চিমবঙ্গের প্রিন্সিপ্যাল হেলথ সেক্রেটারি বিবেক কুমার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রককে চিঠি লিখেছেন ৷ নিজের চিঠিতে তিনি জানিয়েছেন ক্যাবিনেট সেক্রেটারি যে প্রেজেন্টেশন বানিয়েছেন  ৩০ এপ্রিলের ভিডিও কনফারেন্সের ভিত্তিতে তা ভ্রান্ত ৷

চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘৩০ এপ্রিলের বিকেল ৩ টা-র সময়ের ভিডিও কনফারেন্স হয় ক্যাবিনেট সেক্রেটারির সঙ্গে সেখানে প্রেজেন্টেশন করা হয়েছিল ৷ তার ভিত্তিতে ১০ টি জেলাকে রেড জোন বলা হয়েছে, এটা একটা ভ্রান্ত বিশ্লেষণ৷ কেন্দ্র সরকার এখন যে পয়েন্টগুলির ভিত্তিতে কোভিড ১৯ এর এলাকা ঠিক করেছে তার নিরিখে রেড জোনে শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গের চারটি জেলা রয়েছে , সেগুলি হল কলকাতা. হাওড়া. উত্তর ২৪ পরগণা, পূর্ব মেদিনিপুর ৷ ’

 এই চিঠির সঙ্গে স্বাস্থ্য সচিব পশ্চিমবঙ্গের রেড, অরেঞ্জ, গ্রিন ডিস্ট্রিক্ট গুলির বিবরণও দিয়েছেন ৷ এতে বলা হয়েছে এটাই পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলির সঠিক পরিস্থিতির বিবরণ ৷

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক সারা দেশে ১৩০ টি জেলার একটি লিস্ট বানিয়েছে ৷ যা সারা দেশে রেড জোনের মধ্যে পড়ছে ৷ অরেঞ্জ জোনে আছে ২৮৪ জেলা, আর গ্রিন জোনে রয়েছে ৩১৯ জেলা ৷

এতে ক্যাটাগরি নির্ধারিত হয়েছে কোভিড ১৯ -র অ্যাক্টিভ কেস, ডাবলিং রেট, টেস্টিং ও পর্যবেক্ষণের গতির ফিডব্যাকের ওপর ৷ মন্ত্রক জানিয়েছে ১০ মে অবধি এই জেলাগুলি এই সংজ্ঞাতেই থাকবে ৷ ৩ মে দ্বিতীয় পর্বের লকডাউন শেষ হচ্ছে ৷ এই লিস্টে বলা হয়েছিলে নিজেদের সংক্রমণ এলাকা চিনে নিতে পারবে রাজ্যগুলি ৷

কেন্দ্রীয় মন্ত্রক জানিয়েছে প্রতি সপ্তাহে এই রিপোর্ট নতুন করে বেরোবে ৷ রাজ্যগুলির সঙ্গে পরবর্তী পর্যায়ে কথা বলে নেওয়া হবে ৷

     
Published by: Debalina Datta
First published: May 1, 2020, 6:23 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर