• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • আমফানের মতো শক্তিশালী!‌ ‘‌নিসর্গ’‌ নিয়ে চিন্তায় মুম্বই, গুজরাত, সব লন্ডভন্ড হওয়ার আশঙ্কা

আমফানের মতো শক্তিশালী!‌ ‘‌নিসর্গ’‌ নিয়ে চিন্তায় মুম্বই, গুজরাত, সব লন্ডভন্ড হওয়ার আশঙ্কা

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

স্বাভাবিকভাবে এই ঝড়ের কারণে ইতিমধ্যে পশ্চিম উপকূলের প্রায় সমস্ত অংশের বৃষ্টি শুরু হয়ে গিয়েছে

  • Share this:

    #‌নয়াদিল্লি:‌ আরও কাছে এসে পড়েছে ঘূর্ণিঝড় আমফান। করোনা বিধ্বস্ত মহারাষ্ট্র আর গুজরাতে নতুন করে যে এই ঘূর্ণিঝড়ের দাপটে ঝামেলা তৈরি হতে চলেছে, সেটা বলাই বাহুল্য। আইএমডি–র দেওয়া ‌শেষ সতর্কবার্তায় দেখা যাচ্ছে, এই ঝড়ের আনুমানিক গতিবেগ হতে পারে ঘণ্টায় ১২৫ কিলোমিটারের কাছাকাছি। ৩ জুন সকাল সাতটা থেকে ১২টার মধ্যে এটি একদিকে রায়গড় মহারাষ্ট্রের হরিহরেশ্বর অন্যদিকে দমনের মধ্যবর্তী কোনও একটি এলাকায় আছড়ে পড়তে পারে। সেই সময় এর সর্বোচ্চ গতি থাকতে পারে ঘণ্টায় ১২৫ কিমি। যাকে আইএমডি অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় বলেছে।

    এই ঝড়ের কারণে ইতিমধ্যে পশ্চিম উপকূলের প্রায় সমস্ত অংশের বৃষ্টি শুরু হয়ে গিয়েছে। একদিকে কেরলে বর্ষা ঢুকে যাওয়ায় সেখানে বর্ষার বৃষ্টি অন্যদিকে কর্ণাটক, মুম্বই ও গুজরাতে নিম্নচাপের আভাষ ইতিমধ্যে পেতে শুরু করেছেন সাধারণ মানুষ। হাওয়া অফিসের পক্ষ থেকে মৎসজীবীদের সমুদ্রে যেতে ইতিমধ্যে নিষেধ করা হয়েছে।

    বঙ্গোপসাগরের মতো আরব সাগরেও ঘূর্ণিঝড় ততটা নিয়মিত নয়। দীর্ঘদিন পরে এমন ঘূর্ণিঝড়ের সামনে পড়তে চলেছে বাণিজ্য নগরী। তাই কোনও অভিজ্ঞতাও নেই লড়াই করার। তবে আমফানের ক্ষয়ক্ষতির ওপর নজর রেখে লড়াইয়ের রূপরেখা তৈরি করতে চাইবে মহারাষ্ট্র সরকার। ইতিমধ্যে মহারাষ্ট্রে পৌঁছে গিয়েছে ১০ টি এনডিআরএফের দল। গোয়া সহ সমস্ত উপকূলে সমুদ্রের পাশে যাঁরা থাকেন, তাদের সাবধান করা হয়েছে। কিছু মানুষরে সরিয়েও নিয়ে যাওয়া হয়েছে। পর্যটক শূন্য হওয়ায় পরিস্থিতি সামলাতে কিছুটা হলেও সুবিধা হচ্ছে প্রশাসনের।

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: