Home /News /national /
Hijab Row in Karnataka: ৩ দিন বন্ধ থাকবে স্কুল-কলেজ, হিজাব-বিতর্কে রাজ্যবাসীর কাছে শান্তি-আর্জি কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রীর

Hijab Row in Karnataka: ৩ দিন বন্ধ থাকবে স্কুল-কলেজ, হিজাব-বিতর্কে রাজ্যবাসীর কাছে শান্তি-আর্জি কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রীর

রাজ্যবাসীর কাছে অনুরোধ মুখ্যমন্ত্রীর

রাজ্যবাসীর কাছে অনুরোধ মুখ্যমন্ত্রীর

Hijab Row in Karnataka: এই মামলায় এদিন কোন নির্দেশ দেয়নি আদালত। বুধবারও হবে এই মামলার শুনানি। তবে, সকলের কাছে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার আবেদন করেছেন বিচারপতিও।

  • Share this:

    #কর্নাটক: কর্ণাটকের কলেজে হিজাব পরা নিয়ে বিতর্ক এখনও তুঙ্গে। মঙ্গলবার হাইকোর্টে হিজাব মামলার শুনানির দিন ছিল। সেই দিকেই তাকিয়ে রয়েছে পড়ুয়া থেকে কর্নাটকবাসী সকলে। এমনকী কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্বাই জানিয়েছেন, সংবিধানে রয়েছে কলেজে ইউনিফর্ম পরার নিয়ম। কাজেই এই নিয়মের কোনও বদল করা হবে না। কর্নাটকের শিক্ষা আইনেও এই নির্দেশিকার উল্লেখ করা রয়েছে। তাই এই নিয়মের কোন রদবদল হবে না। এই পরিস্থিতিতে হাইকোর্টের দিকে তাকিয়ে আছে সরকারও। মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্বাই এদিন রাজ্যবাসীর কাছে আর্জি করে বলেন, ''আমরা কর্নাটক হাইকোর্টের নির্দেশের জন্য অপেক্ষা করছি। আমি শিক্ষার্থীদের কাছে শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রাখার আহ্বান জানাচ্ছি। আমি স্কুল প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছি, যাতে ছাত্রদের সঙ্গে কোন সংঘর্ষ না হয়। উস্কানিমূলক বিবৃতি না দেওয়ার জন্য বাইরে থেকে সংশ্লিষ্ট সকলের কাছে আবেদন করছি।'' যদিও এই মামলায় এদিন কোন নির্দেশ দেয়নি আদালত। বুধবারও হবে এই মামলার শুনানি। তবে, সকলের কাছে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার আবেদন করেছেন বিচারপতিও। এই পরিস্থিতিতে আগামী ৩ দিনের জন্য রাজ্যের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ করে দেওয়া হল। কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্মাই (Basavaraj Bommai)টুইট করে জানিয়েছেন, রাজ্যে আগামী ৩ দিন বন্ধ থাকবে স্কুল।

    প্রসঙ্গত, সম্প্রতি উদুপির কুন্দপুর সরকারি পিইউ কলেজে হিজাব পরে এসেছিল কয়েকজন ছাত্রী। সেই কারণে ২৫ জন ছাত্রীকে কলেজে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ। তা নিয়ে শোরগোল ছড়িয়ে পড়ে। এরপর কিছু পড়ুয়া আবার গেরুয়া পোশাক পরে কলেজে আসে। বিষয়টি গড়ায় আদালতেও। তবে, তাতেও উত্তেজনা কমেনি।

    আরও পড়ুন: কংগ্রেস না থাকলে কী হত? সংসদে তালিকা পেশ মোদির, ঢাল করলেন মহাত্মা গান্ধিকে

    উদুপির ঘটনার পর কর্ণাটকের বিজয়পুর, চিক্কাবল্লপুর, চিক্কামাগালুরু এবং হাভেরি এলাকার বিভিন্ন কলেজের পড়ুয়াদের অনেকে বোরখা পরে আসেন। কেউ আবার আসেন পালটা গেরুয়া পোশাক পরে। এমনিতেই করোনা আবহে দীর্ঘদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি বন্ধ ছিল। তার মধ্যেই এই বিতর্কে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলি তার স্বাভাবিক চেহারা হারিয়ে ফেলে। যা নিয়ে ক্ষুব্ধ হন অধ্যাপক-সহ কলেজগুলির কর্তা এবং অভিভাবকরা। এমনকী পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝে সোমবার কলেজ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় অনেক জায়গায়।

    আরও পড়ুন: পাশেই থানা, সিসিটিভি-র তার কাটা! ফের হাবড়ায় যা ঘটল, আতঙ্কে কাঁপছে এলাকাবাসী

    প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যেই রাজ্যের শিক্ষা দফতর নির্দেশিকা জারি করেছে, কলেজে ইউনিফর্ম পরে আসা বাধ্যতামূলক। সেই ইউনিফর্মের মধ্যে হিজাব থাকছে কিনা, তা অবশ্য উল্লেখ করা হয়নি। এই পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্বাই জানান, হিজাবের ঘটনাটি যেহেতু আদালত দেখছে, তাই এ বিষয়ে তিনি কিছু বলতে চান না। আদালত এই বিষয়ে শুনানি করে রায় ঘোষণা করবে। আদালতের শুনানির পর রাজ্য সরকার বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। তিনি আরও বলেন, ''হিজাব ঘটনাটির পিছনে কোনও সক্রিয় শক্তি কাজ করছে। কারণ আগেও কেরল ও মহারাষ্ট্রে একই রকম ঘটনা ঘটেছিল।''

    এদিকে, কর্ণাটকের হিজাব নিয়ে বিতর্ক নিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশী বলেন, ''সমস্ত ছাত্রছাত্রীদের অবশ্যই স্কুল বা প্রশাসন দ্বারা নির্ধারিত ড্রেস কোড অনুসরণ করতে হবে। রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখতে হবে। আমাদের দেখতে হবে কারা ছাত্রদের উসকানি দিচ্ছে।''

    Published by:Suman Biswas
    First published:

    Tags: Hijab, Karnataka

    পরবর্তী খবর