• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • পুজোর রাতে জনবহুল ব্রিজে স্কুটার নিয়ে দুই যুবকের দুঃসাহসিকতা, ভিডিও চমকে দেবে!

পুজোর রাতে জনবহুল ব্রিজে স্কুটার নিয়ে দুই যুবকের দুঃসাহসিকতা, ভিডিও চমকে দেবে!

অনেকে আবার চেঁচিয়ে সাবধান করতেও চাইছেন ওই দুই যুবককে। কিন্তু কে শোনে কার কথা ! ওই সাদা স্কুটারের আরোহীরা মেতে রয়েছেন গতির মজার খেলায় !

অনেকে আবার চেঁচিয়ে সাবধান করতেও চাইছেন ওই দুই যুবককে। কিন্তু কে শোনে কার কথা ! ওই সাদা স্কুটারের আরোহীরা মেতে রয়েছেন গতির মজার খেলায় !

অনেকে আবার চেঁচিয়ে সাবধান করতেও চাইছেন ওই দুই যুবককে। কিন্তু কে শোনে কার কথা ! ওই সাদা স্কুটারের আরোহীরা মেতে রয়েছেন গতির মজার খেলায় !

  • Share this:

#সুরাত: সবার প্রথমেই জানিয়ে রাখা ভালো যে এ ঘটনা আমাদের শহর কলকাতার নয়। তবে হ্যাঁ, আমাদেরই দেশের- এ বিষয়ে সন্দেহের কোনও অবকাশই নেই! প্রায়ই যে এ দেশের অতিসাহসী যুবকেরা তাঁদের দুই চাকার যানটিকে নিয়ে পথের মাঝে কেরামতি দেখিয়ে থাকেন, কখনও বিপদে পড়েন, কখনও আবার নয়- এ কি আমরা ভালো করেই জানি না?

তো, সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এই যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে, সেখানেও দেখা যাচ্ছে দুই যুবককে। জনবহুল এক ব্রিজের উপরে প্রচণ্ড গতিতে সাপের মতো এঁকে-বেঁকে স্কুটার চালিয়ে চলেছেন তাঁরা! যে সব গাড়িকে পাশ কাটিয়ে বেরিয়ে চলেছেন তাঁরা, সেই সব গাড়ির যাত্রীরা কাণ্ড দেখে চমকে উঠছেন। অনেকে আবার চেঁচিয়ে সাবধান করতেও চাইছেন ওই দুই যুবককে। কিন্তু কে শোনে কার কথা! ওই সাদা স্কুটারের আরোহীরা মেতে রয়েছেন গতির মজার খেলায়!

জানা গিয়েছে যে এই ঘটনাটি ঘটেছে গুজরাতে। সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে নবরাত্রি উৎসব শুরু হয়ে গেলেও গুজরাতে তা একটু বেশিই জাঁকজমকের সঙ্গে পালিত হয়ে থাকে। ডান্ডিয়ার ছন্দে মেতে ওঠেন নাগরিকেরা, চলে রাত্রি জাগরণ করে অম্বা মাতার উপাসনা! সেই ছন্দেই কি একটু অন্য ভাবে অংশ নিলেন এই দুই যুবক?

ঘটনা অন্তত সে দিকেই ইঙ্গিত করছে। ভিডিও মারফত পাওয়া খবর বলছে যে গুজরাতের সুরাতের জিলানি ব্রিজ, যা এখন কি না চন্দ্রশেখর আজাদ ব্রিজ নামে পরিচিত, তাকেই বেছে নিয়েছিলেন এই দুই যুবক কৌতুকের ময়দান হিসেবে। তাঁদের নিবৃত্ত করা যায়নি, তাই অগত্যা ঘটনার ভিডিও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় তা আপলোড করেছে সংবাদমাধ্যম।

তার পর? স্বাভাবিক ভাবেই সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ঘটনা নিয়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হওয়ায় পুলিশকেও ময়দানে নামতে হয়েছে। শেষ পর্যন্ত তাঁরা পেশায় মৎস্যজীবী ওই দুই যুবককে ধরতেও পেরেছেন। তবে একই সঙ্গে একটা ঘটনা কিছুতেই ধরতে পারছেন না স্থানীয়রা। তাঁদের দাবি- পুলিশের তরফে এমন গাফিলতি হয় কী করে? সবার চোখের সামনেই যা ঘটার হয়ে গেল আর যতক্ষণ না সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও আপলোড হল, ততক্ষণ পুলিশ কোনও উদ্যোগই নিল না?

Published by:Piya Banerjee
First published: