ট্রাকে পরিযায়ী শ্রমিকদের পাশে মৃত শ্রমিকদের দেহ!‌ ‘‌অমানবিক’, বললেন হেমন্ত সোরেন

One of the three trucks with the dead and the injured migrants

তিনি লিখেছেন, ‘আমাদের পরিযায়ী শ্রমিকদের ওপর এই অমানবিক ব্যবহার না হলেই ভাল হত।

  • Share this:

    #‌ঝাড়খণ্ড:‌ উত্তরপ্রদেশের ঔরিয়ায় ট্রাক ও লরির সংঘর্ষে বেঘোরে প্রাণ গিয়েছিল ২৩ জন পরিযায়ী শ্রমিকের৷ এদের মধ্যে অনেকেই ছিলেন ঝাড়খণ্ডের বাসিন্দা৷ ১৬ মে, শনিবার ভোর সাড়ে ৩টে নাগাদ এই ঘটনা ঘটে। তারপর বেশ কিছুটা সময় কেটে যাওয়ার পর মৃত শ্রমিকদের দে‌হ ঝাড়খণ্ডে পাঠাচ্ছে উত্তর প্রদেশ সরকার। আর সেই দেহ পাঠানোর একটি ছবি সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, একদিকে আহত দুই শ্রমিক বসে আছেন, অন্য দিকে মৃত শ্রমিকদের দেহ। আর এই ছবি দেখেই চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন৷

    তিনি লিখেছেন, ‘‌আমাদের পরিযায়ী শ্রমিকদের ওপর এই অমানবিক ব্যবহার না হলেই ভাল হত। উত্তরপ্রদেশ সরকার ও নীতীশ কুমার জি, আপনারা চেষ্টা করুন পরিযায়ী শ্রমিক ও শ্রমিকদের দেহ অন্য যানে অন্তত ঝাড়খণ্ডের সীমান্ত পর্যন্ত পাঠাতে। বাকি পথ আমরা যানবাহন জোগাড় করে বোকারোতে ওঁদের বাড়িতে পৌঁছে দেব।’

    উল্লেখ্য, মোট ২৬ জন মৃতের মধ্যে ১১ জন ঝাড়খণ্ডের বোকারোর বাসিন্দা। স্বাভাবিক ভাবে নিজের রাজ্যের শ্রমিকদের এই ভাবে ফেরানো হচ্ছে দেখে কিছুটা ক্ষুব্ধ হয়েছে ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী। ‌

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: