National Population Register: লাগবে না কোনও নথি, লাগবে কোনও প্রমাণপত্র, NPR হবে যে প্রক্রিয়ায় জেনে নিন

National Population Register: লাগবে না কোনও নথি, লাগবে কোনও প্রমাণপত্র, NPR হবে যে প্রক্রিয়ায় জেনে নিন
Representative Image

কেন্দ্রের তরফে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, অসম বাদে সব রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ২০২০ সালের এপ্রিল থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এনপিআর-এর কাজ চলবে ৷ এর জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ৮৫০০ কোটি টাকা

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: NPR অর্থাৎ ন্যাশনাল পপুলেশন রেজিস্টারের জন্য লাগবে কোনও নথি ৷ এমনকি দরকার নেই কোনও বায়োমেট্রিক তথ্যেরও ৷ বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করবেন সংশ্লিষ্ট কর্মীরা ৷ মৌখিক তথ্যের উপর ভিত্তি করেই তৈরি হবে NPR ৷ জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর ৷ কেন্দ্রের তরফে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, অসম বাদে সব রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ২০২০ সালের এপ্রিল থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এনপিআর-এর কাজ চলবে ৷ এর জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ৮৫০০ কোটি টাকা ৷

নাগরিকত্ব আইন ও নাগরিকপঞ্জি বিতর্কে উত্তাল গোটা দেশ ৷ তার মাঝেই NPR-এ অনুমোদন কেন্দ্রের ৷ ন্যাশনাল পপুলেশন রেজিস্টারে ছাড়পত্র দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা ৷ NPR চালু করতে বদ্ধপরিকর মোদি সরকার ৷ বিরোধীদের আপত্তি উড়িয়েই ন্যাশনাল পপুলেশন রেজিস্টার তৈরির কাজ শুরু করতে অনুমোদন দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভা ৷ এনপিআর কী? এনপিআর-এর পুরো কথা হল ন্যাশনাল পপুলেশন রেজিস্টার। এর মাধ্যমে কোন এলাকায় কতজন বাস করেন, শেষ ছ’মাসে কোনও এলাকায় নতুন কত বাসিন্দা এসেছেন তার হিসেব নেওয়া হয়। ওই হিসেবের মধ্যে স্ত্রী, পুরুষ, শিশু ভাগের পাশাপাশি ধর্ম অনুসারেও ভাগ করা হয়। সেই কাজই বন্ধ করে দিল রাজ্য সরকার। জনগণনা যেমন খতিয়ে দেখে লোকসংখ্যা। ঠিক সে ভাবেই নাগরিকদের বিভিন্ন নথি দেখে ওই লোকসংখ্যার চরিত্র বিশ্লেষণ করে এনপিআর। যেখানে জানতে চাওয়া হয়, ওই ব্যাক্তি কোনও ধর্মের, কতদিন ধরে আছেন। ওই ব্যাক্তি কি বৈধ নাগরিক, নাকি আইনি বিধি মেনে কিছুদিনের জন্য আছে। এক কথায় নাগরিকের চরিত্রের তথ্য তুলে ধরাই এনপিআর-এর উদ্দেশ্য।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর জানিয়েছে প্রতি ৮ থেকে ১০ বছরে এই পঞ্জি আপডেট করা হবে ৷ তবে জনগণনার মতোই এতে কর্মীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করবেন ৷ তবে কোনও বায়োমেট্রিক তথ্য বা নথি দেওয়ার প্রয়োজন নেই ৷

First published: December 24, 2019, 5:32 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर