• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • TMC LEADER BRATYA BASU ATTACKS BIPLAB DEB GOVERNMENT FROM AGARTALA IN TRIPURA DMG

Bratya Basu attacks Biplab Deb government in Tripura: বিপ্লব দেব সরকার স্বৈরতান্ত্রিক, আগরতলায় তোপ ব্রাত্যর! ত্রিপুরায় চাপ বাড়াচ্ছে তৃণমূল

বিপ্লব দেব সরকারকে নিশানা করলেন ব্রাত্য৷

বৃহস্পতিবার ত্রিপুরা পৌঁছবেন তৃণমূল সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার৷ আগামী শুক্রবার ত্রিপুরায় যেতে পারেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং ডেরেক ও ব্রায়েন (Bratya Basu attacks Biplab Deb government in Tripura)৷

  • Share this:

#আগরতলা: ত্রিপুরায় গিয়েই বিপ্লব দেব সরকারকে স্বৈরতান্ত্রিক বলে আক্রমণ করলেন তৃণমূল নেতা এবং পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু৷ একই সঙ্গে আই প্যাক কর্মীদের আটকে রাখার ঘটনায় ত্রিপুরার বিজেপি সরকারের উপরেও আরও চাপ বাড়াচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস৷ এ দিনই ত্রিপুরায় পৌঁছেছেন তৃণমূল নেতা ব্রাত্য বসু, মলয় ঘটক এবং ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বৃহস্পতিবার ত্রিপুরা পৌঁছবেন তৃণমূল সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার৷ আগামী শুক্রবার ত্রিপুরায় যেতে পারেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং ডেরেক ও ব্রায়েন৷

২০২৩ সালে ত্রিপুরা দখলের লক্ষ্যে নতুন করে পরিকল্পনা ছক সাজাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস৷ সেই উদ্দেশ্যেই ত্রিপুরায় সমীক্ষা শুরু করেছে প্রশান্ত কিশোরের সংস্থা আই প্যাক৷ অভিযোগ, আই প্যাকের হয়ে ত্রিপুরায় সমীক্ষা করতে যাওয়া ২৩ সদস্যের একটি দলকে গত কয়েকদিন ধরে আগরতলার একটি হোটেলে গৃহবন্দি করে রেখেছিল ত্রিপুরা পুলিশ৷ করোনা বিধিনিষেধের অজুহাতে তাঁদের আটকে রাখা হয় বলে অভিযোগ৷ তৃণমূলের অবশ্য দাবি, যাঁদের আটক করা হয়েছিল তাঁদের প্রত্যেকের সঙ্গেই কোভিড নেগেটিভ রিপোর্ট ছিল৷ এমন কি, পুলিশের নির্দেশে নতুন করে করোনা পরীক্ষার পরও রিপোর্ট নেগেটিভ আসে৷ শেষ পর্যন্ত, আজ বুধবার আই প্যাক কর্মীদের হোটেল থেকে বেরনোর অনুমতি দেওয়া হয়৷

তবে হোটেল থেকে বেরনোর অনুমতি পেলেও আগামী ১ অগাস্ট আই প্যাকের এই সদস্যদের আগরতলা পশ্চিম থানায় হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ৷ নির্দেশ না মানলে তাঁদের বিরুদ্ধে করোনা বিধিভঙ্গের অভিযোগে মহামারি আইনে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে পুলিশের তরফে৷

এ দিন ত্রিপুরা পৌঁছে ব্রাত্য বসু বিপ্লব দেব সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগে বলেন, 'এই আচরণ স্বৈরতান্ত্রিক৷ ফ্যাসিবাদী আচরণের সরকারি মুখ আমরা ত্রিপুরায় দেখতে পাচ্ছি৷ ত্রিপুরা মৈত্রী, সম্প্রীতির জায়গা৷ সাম্প্রদায়িক দৃষ্টিভঙ্গি ত্রিপুরার মাটিতে চলতে পারে না৷ ত্রিপুরার মানুষও বুঝতে পারছেন যে ভারতবর্ষে বিজেপি-কে একজনই আটকাতে পারেন, তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ দলের নাম তৃণমূল কংগ্রেস৷'

তৃণমূলের প্রতিনিধি দলের আর এক সদস্য পশ্চিমবঙ্গের আইনমন্ত্রী মলয় ঘটক বলেন, 'এঁদের প্রত্যেকের কাছে কোভিড নেগেটিভ রিপোর্ট ছিল৷ করোনা বিধি মানলে কেন তাঁদের থানায় গিয়ে হাজিরা দিতে হবে? এখানকার সরকার যদি মনে করে থাকে যে মিথ্যে মামলা করে তৃণমূলকে ভয় দেখাবে, তাহলে ওরা ভুল করছে৷'

তৃণমূল সূত্রে খবর, ত্রিপুরায় তৃণমূলকে নিয়ে নতুন করে আগ্রহ তৈরি হয়েছে৷ রাজ্যের মহিলাদের মধ্যেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে তুমুল আগ্রহ তৈরি হয়েছে৷ সেই কারণে একজন মহিলা সাংসদকে ত্রিপুরায় পাঠাতে চাইছে তৃণমূল৷ তাই বৃহস্পতিবার কাকলি ঘোষ দস্তিদার আগরতলায় পৌঁছবেন৷ শুক্রবার ত্রিপুরায় গিয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বেশ কয়েকটি সাংগঠনিক বৈঠকও করতে পারেন বলে খবর৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published: