ভাগ্য সহায়! ইয়েস ব্যঙ্কে রাখা ১৩ হাজার কোটি টাকা তুলে নিয়েছিল তিরুপতি কর্তৃপক্ষ

ভাগ্য সহায়! ইয়েস ব্যঙ্কে রাখা ১৩ হাজার কোটি টাকা তুলে নিয়েছিল তিরুপতি কর্তৃপক্ষ
তিরুপতি মন্দিরের মূল প্রবেশদ্বার৷ File photo
  • Share this:

#হায়দরাবাদ: নির্দেশিকা জারি করে ইয়েস ব্যঙ্ক থেকে গ্রাহকদের টাকা তোলার ঊর্ধ্বসীমা বেঁধে দিয়েছে আরবিআই৷ রাতারাতি এই সিদ্ধান্তে চিন্তায় পড়েছেন কয়েক লক্ষ গ্রাহক৷ এই আবহেই স্বস্তির নিশ্বাস ফেলছে তিরুমালা তিরূপতি মন্দির কর্তৃপক্ষ৷ কারণ এই সিদ্ধান্ত প্রণয়ণ হওয়ার কয়েক মাস আগেই নিজেদের ইয়েস ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে ১৩০০ কোটি টাকা তুলে নিয়েছিলেন তাঁরা৷

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ইয়েস ব্যাঙ্ক থেকে টাকা তোলায় বিধিনিষেধ জারি হয়েছে৷ নতুন নিয়ম অনুযায়ী, ৩ এপ্রিলের মধ্যে কোনও অ্যাকাউন্ট হোল্ডার ৫০০০০ টাকার বেশি তুলতে পারবেন না৷ তবে ড্রাফট বা পে অর্ডারের ক্ষেত্রে এই নিয়ম প্রযোজ্য হবে না৷ ইয়েস ব্যঙ্ক আরও জানিয়েছে এই সময়ের মধ্যে কোনও ঋণ দেবে না ইয়েস ব্যঙ্ক৷ রিজার্ভ ব্যঙ্কের দাবি, ব্যাঙ্কের সম্পদ পুনর্গঠনের জন্যেই এই সিদ্ধান্ত৷ কিন্তু এত বড় রদবদল এক রাতে ঘটেনি৷ ২০১৭ থেকেই বারবার সামনে আসছিল নানা সমস্যার কথা৷

অদূর ভবিষ্যতে এমন সমস্যা হতে পারে অনুমান করেই তিরুমালা তিরুপতি দেবস্থানমের প্রধান সেবায়েত ওয়াই ভি সুব্বা রেড্ডি দায়িত্ব নিয়েই চারটি বেসরকারি ব্যাঙ্কে থাকা টাকা তুলে নিতে বলেন কোষাধক্ষ্যদের৷

মন্দিরের এক কর্মকর্তার কথায়,‘‘সুব্বা রেড্ডি অনেক আগেই বুঝতে পেরেছিলেন আর্থিক সঙ্কট আসতে চলেছে৷ টাকা তোলার প্রক্রিয়া মসৃণ ছিল না৷ তবে চাপের মুখে নতি স্বীকার না করে অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জগনমোহন রেড্ডির দ্বারস্থ হন৷ নোটিস জারি করে এই টাকা ঘরে ফেরানো হয়েছিল৷

First published: March 6, 2020, 6:45 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर