পর্যটনের মরসুমে সামনে এল ৩ রয়্যাল বেঙ্গল শাবক! দুষ্টুমি আর খুনসুঁটিতে মন ভরছে পর্যটকদের 

পর্যটনের মরসুমে সামনে এল ৩ রয়্যাল বেঙ্গল শাবক! দুষ্টুমি আর খুনসুঁটিতে মন ভরছে পর্যটকদের 

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: বয়স সাড়ে মাস সবে! কিন্তু দেখে বোঝার উপায় নেই। কী লম্ফ ঝম্ফ রে বাবা! একবার এ ওর পিঠে চেপে বসে তো আর এক বার গাছে ওঠার তোড়জোড়! দুষ্টুমিই ওদের নিত্য সঙ্গী! যা মন ভরিয়ে দিয়েছে পর্যটকদের। এনক্লোজারের বেড়াজাল টপকে আজই সামনে এল ত্রয়ী! বেঙ্গল সাফারি পার্কের তিন নতুন অতিথি! আজই সাফারি পার্কের পঞ্চম জন্মদিনের বিশেষ দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতেই আজ তিন রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার শাবককে আনা হল পর্যটকদের সামনে। মা 'শীলার' পরম স্নেহে বড় হয়ে উঠছে। আজও মায়ের সঙ্গে এনক্লোজারের বাইরে আসা। করোনা আবহেই জন্ম হয়ে ওদের। এখনও নামকরণ করা হয়নি। তাতে কি এসে যায় তিন খুদে রয়্যাল বেঙ্গল ভাইদের। খুনসুঁটিতে ব্যস্ত নিজেদের মধ্যে।

আজ এক এক করে এনক্লোজার থেকে বাইরে বেড়িয়ে আসে তিন শাবক। পরিচয় হয় সাফারি পার্কে বেড়াতে আসা পর্যটকদের সঙ্গে। কে বলবে আজ ওদের প্রথম দিন! আপন মনে নিজেদের মধ্যে খেলায় মত্ত তিন ভাই! হাড় কাঁপানো ঠাণ্ডা কাবু করতে পারেনি ওদের। উলটে চরম দস্যিপনা! ছুটে বেড়াচ্ছে এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে। গ্যাস বেলুন উড়িয়ে পার্কের জন্মদিন পালন করা হয়। ছিলেন বন্যপ্রাণ শাখার অতিরিক্ত মুখ্য বনপাল বিপিন কুমার সুদ। তিনি জানান, মা-সহ তিন শাবকই সুস্থ। খাওয়া-দাওয়াও ভালই করছে। বেশ খোশ মেজাজে সাফারি পার্কের ত্রয়ী। নিউ নর্মালে ভিড়ও বাড়ছে। আর এই তিন শাবকের সামনে আসা অবশ্যই পার্কের বাড়তি আকর্ষণ। বাড়বে পর্যটকের সংখ্যাও।

এ দিন বেড়াতে আসা পর্যটকেরাও বেশ খুশী। সংবাদমাধ্যমেই প্রথম জানতে পেরেছিলেন তিন শাবকের জন্মের কথা। অপেক্ষা ছিল কবে দেখতে পাবে ত্রয়ীকে! আর আজ পার্কে এসে চাক্ষুস দেখতে পেয়ে যারপরনাই খুশী কামনা ভদ্র, প্রতিমা দেবনাথেরা। ইংরেজী নতুন বছরে ভরা পর্যটন মরসুমে এর থেকে বড় উপহার পর্যটকদের কাছে কি আর হতে পারে!

Partha Sarkar

Published by:Shubhagata Dey
First published: