কৃষকের মেয়েই পুলিশকর্মী! আন্দোলনকারীদের রুখতে সেদিন যা করেছিলেন তিনি

কৃষকের মেয়েই পুলিশকর্মী! আন্দোলনকারীদের রুখতে সেদিন যা করেছিলেন তিনি
সেই মহিলা পুলিশকর্মীর নাম পুষ্পালতা। ভিডিওয় দেখা গিয়েছে রাজধানীতে তখন ব্যারিকেড ভেঙে ফেলার চেষ্টা করছেন আন্দোলকারীরা। উল্টোদিকে সেই মহিলা পুলিশকর্মী প্রাণপণ চেষ্টা করছেন তাঁদের থামানোর জন্য।

সেই মহিলা পুলিশকর্মীর নাম পুষ্পালতা। ভিডিওয় দেখা গিয়েছে রাজধানীতে তখন ব্যারিকেড ভেঙে ফেলার চেষ্টা করছেন আন্দোলকারীরা। উল্টোদিকে সেই মহিলা পুলিশকর্মী প্রাণপণ চেষ্টা করছেন তাঁদের থামানোর জন্য।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: সাধারণতন্ত্র দিবসে লালকেল্লা কাণ্ডের বেশ কিছু ভিডিও বিগত কয়েক দিনে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। পুলিশকর্মীদের সঙ্গে আন্দোলনকারীদের অশান্তির ছবি সামনে এসেছে। তবে সম্প্রতি এক ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যেখানে এক মহিলা পুলিশকর্মীকে দেখা যাচ্ছে। গাজিপুর সীমান্তে অশান্তি চলাকালীন আন্দোলনকারীদের সামনে দাঁড়িয়ে পরিস্থিতি সামাল দিতে দেখা গিয়েছে তাঁকে।

    সেই মহিলা পুলিশকর্মীর নাম পুষ্পালতা। ভিডিওয় দেখা গিয়েছে রাজধানীতে তখন ব্যারিকেড ভেঙে ফেলার চেষ্টা করছেন আন্দোলকারীরা। উল্টোদিকে সেই মহিলা পুলিশকর্মী প্রাণপণ চেষ্টা করছেন তাঁদের থামানোর জন্য। তিনি নিজেও একজন কৃষকের মেয়ে। সেকথা নিজেই বলেছেন পুষ্পালতা।

    ভিডিওয় তাঁকে বলতে শোনা যাচ্ছে, "আমিও একজন কৃষকের মেয়ে। কিন্তু আমি নিজের উর্দিকে প্রতারণা করতে পারব না। আমি যদি আমার উর্দিকে প্রতারণা করি, তা হলে সেটা আপনারাও করবেন।" সেই ভিডিওয় কৃষক নেতা রাকেশ টিকাইটকেও দেখা গিয়েছে।


    প্রসঙ্গত, দিল্লির রাজপথে হিংসা ছড়ানোর অভিযোগে ভারতীয় কিসান ইউনিয়ন এর কৃষক নেতা টিকাইটের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়েছে। দিল্লি পুলিশের অভিযোগ, তাদের সঙ্গে ট্রাক্টর মিছিল নিয়ে কৃষকদের যা চুক্তি হয়েছিল সেগুলি সব ভেঙেছেন কৃষকরা। যার জেরে হিংসা ছড়ায় রাজধানীতে।

    এর পরে লালকেল্লার ঘটনার পরে বহু আন্দোলনকারী কৃষকই পিছু হটতে থাকেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার সংবাদমাধ্যমের সামনে কান্নায় ভেঙে পড়েন রাকেশ টিকাইট। কেঁদেই আকুতি করেন, মৃত্যু বরণ করতেও রাজি। কিন্তু এই আন্দোলন মাঝ পথে ছাড়তে তিনি রাজি নন। এর পরে ফের বহু কৃষক এসে যোগ দেন।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: