Hyderabad Encounter: 'ওদের আত্মসমর্পণ করতে বলি...' কী ভাবে এনকাউন্টার? জানাল পুলিশ

Hyderabad Encounter: 'ওদের আত্মসমর্পণ করতে বলি...' কী ভাবে এনকাউন্টার? জানাল পুলিশ
সাইবারাবাদ পুলিশ

Hyderabad Police: কেন ও কী ভাবে এনকাউন্টার? সাইবারাবাদ পুলিশের দাবি, ওদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছিল৷ সেই সময়ই পালাতে চেষ্টা করে

  • Share this:

#হায়দরাবাদ: ভোর সাড়ে ৩টের সময় হায়দরাবাদ গণধর্ষণ ও খুনে অভিযুক্ত ৪ জনকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল ঘটনাস্থলে৷ পুলিশের জিপে ছিল ৪ অভিযুক্ত, মহম্মদ আলি, জল্লু শিবা, জল্লু নবীন কুমার, চিন্তাকুন্টু চেন্নাকেশাভুলু৷ সে দিনের ঘটনার পুর্নির্মাণের জন্য৷ কী ভাবে তারা ওই মহিলা চিকিত্‍সককে গণধর্ষণ করে৷ তারপর খুন করে দেহ জ্বালিয়ে দেয়৷

কেন ও কী ভাবে এনকাউন্টার? সাইবারাবাদ পুলিশের দাবি, ওদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছিল৷ সেই সময়ই পালাতে চেষ্টা করে৷ সাইবারাবাদ পুলিশের কমিশনার ভি সি সজ্জানারের কথায়, 'ওদের কে আমরা জেরা করছিলাম৷ কী ভাবে ঘটনাটি ঘটায় ওরা৷ হঠাত্‍ ওরা আমাদের উপর হামলা চালায়৷ তারপর পালাতে শুরু করে৷ আমরা ওদের আত্মসমর্পণ করতে বলি৷ ওরা শোনেনি৷ কোনও উপায় না দেখে আমরা গুলি চালাই৷ ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ৪ জনের৷'

 

বেঙ্গালুরু-হায়দরাবাদ ৪৪ নম্বর জাতীয় সড়কে ব্রিজের নীচেই চিকিত্‍সক তরুণীর দেহ ধর্ষণের পর খুন করে জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছিল৷ ঠিক ওই জায়গাতেই এনকাউন্টারে মৃত্যু হয়েছে ৪ অভিযুক্তের৷ গত ২৭ নভেম্বর ধর্ষণ ও খুনের ঘটনাটি ঘটেছিল৷

 

সাইবারাবাদ পুলিশের স্পেশাল অপারেশন টিম অভিযুক্তদের চেরাপল্লি সেন্ট্রাল জেল থেকে চেরাপল্লি কারভার্টে নিয়ে যাচ্ছিল৷ তখনই অভিযুক্তরা পালানোর চেষ্টা করে বলে দাবি পুলিশের৷

এনকাউন্টারে ৪ অভিযুক্তের মৃত্যুর খবরে খুশি ধর্ষিত তরুণীর পরিবার৷ হায়দরাবাদ ধর্ষিতা তরুণীর বাবার কথায়, 'তেলঙ্গানা সরকার ও পুলিশকে ধন্যবাদ৷ আমার মেয়ের আত্মা এ বার শান্তি পেল৷'

First published: 09:46:15 AM Dec 06, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर