• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • অসমে আজ নাগরিকত্বের পরীক্ষা, নির্ধারিত হবে ১.৫ কোটি মানুষের ভাগ্য

অসমে আজ নাগরিকত্বের পরীক্ষা, নির্ধারিত হবে ১.৫ কোটি মানুষের ভাগ্য

Picture Courtesy: Reuters

Picture Courtesy: Reuters

অসমে আজ নাগরিকত্বের পরীক্ষা, নির্ধারিত হবে ১.৫ কোটি মানুষের ভাগ্য

  • Share this:

    #গুয়াহাটি: কড়া নিরাপত্তার মধ্যে আজ প্রকাশিত হবে এনআরসি তথা জাতীয় নাগরিকপঞ্জির চূড়ান্ত তালিকা । অসমের প্রায় ১ কোটি ৫লক্ষ মানুষের জীবন নির্ভর করছে এই তালিকার উপর । প্রতিবেশী রাজ্যগুলিতেও চলছে কড়া নজরদারি ।

    মূলত বাংলাদেশ থেকে অবৈধ অনুপ্রবেশ আটকাতেই চালু করা হয়েছিল এই নাগরিকপঞ্জি । কিন্তু নাগরিকত্বের যথেষ্ট প্রমাণ দেওয়ার পরেও তালিকায় নাম ওঠেনি, এই অভিযোগ উঠেছিল । অসমে প্রথম নাগরিকপঞ্জির তৈরির কাজ শুরু হয়েছিল ১৯৫১ সালে । অসম সরকার জানিয়েছে ১৯৭১ সালের ২৪ মার্চ পর্যন্ত যারা অসমে এসেছেন ও ১৯৫১ সালের তালিকায় যাদের নাম ছিল তাঁদের বংশধরদের নাম থাকবে এই চূড়ান্ত তালিকায় । ১৯৬৬ থেকে ১৯৭১ সালের মধ্যে যারা অসমে এসেছেন তাঁদের ভারতীয় নাগরিক হিসেবে গণ্য করা হবে ।

    নাগরিকপঞ্জিতে নাম তোলার জন্য মোট আবেদনের সংখ্যা ছিল প্রায় ৩ কোটি ২৯ লক্ষ , যাদের মধ্যে ১কোটি ৯০ লক্ষ আবেদকের নাম ইতিমধ্যেই প্রথম দফার তালিকায় দেওয়া হয়েছে । এবছরের ১ জানুয়ারি প্রকাশ করা হয়েছিল এই প্রথম দফার তালিকাটি । কিন্তু এনআরসি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই তালিকায় বেশ কিছু অসঙ্গতি থাকার ফলে প্রায় ১.৫ লক্ষ মানুষের নাম এই তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয় । এদের মধ্যে আছেন প্রায় ৫০,০০০ মহিলা । কারণ তাঁরা শুধুমাত্র পঞ্চায়েতের শংসাপত্র জমা দিয়েছিলেন । কিন্তু পরে তাঁদের জানানো বিবাহ রেজিস্ট্রি ও বিদ্যালয় বিষয়ক নথিসমূহও জমা দিতে হবে ।

    ইতিমধ্যে তালিকায় নাম না থাকার সম্ভাবনায় উদ্বিগ্ন অসমের বাসিন্দাদের একটি বড় অংশ । উদ্বিগ্ন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ও । যাদের অনুপ্রবেশকারী হিসেবে চিহ্নিত করা হবে, বাংলাদেশ আদৌও তাঁদের নাগরিকত্ব দেবে-এই বিষয়ে একদমই কোনও নিশ্চয়তাই নেই । যদিও অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল জানিয়েছেন, তালিকায় নাম না থাকলেও আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই । পুনরায় নাগরিকত্ব দাবি করার জন্য পর্যাপ্ত সময় দেওয়া হবে তাঁদের ।

    First published: