• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • TABLE TOP AIRPORT IS ALWAYS A TOUGH LANDING AND KOZHIKODE INCIDENT REMINDS 2010 MANGALORE AIRPORT AIRCRASH DD

টেবল মাউন্টেনের ওপর তৈরি বিমানবন্দরে ল্যান্ডিং ভীষণ কঠিন, কোঝিকোড়ের ঘটনা মনে করিয়ে দিল ম্যাঙ্গালোরের বিমান দুর্ঘটনা

মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন মধ্যরাতে ট্যুইট করে জানিয়েছেন, উদ্ধার করা হয়েছে অভিশপ্ত প্লেনের সব যাত্রীকেই৷

মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন মধ্যরাতে ট্যুইট করে জানিয়েছেন, উদ্ধার করা হয়েছে অভিশপ্ত প্লেনের সব যাত্রীকেই৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি : ২০১০ -এ কর্ণাটকের ম্যাঙ্গালোরে একইভাবে একটি বিমান দুর্ঘটনার কবলে পড়েছিল৷ ২০২০-র ৭ অগাস্টের ব্ল্যাক ফ্রাইডে আবার সেই শিহরণ জাগিয়ে দিল৷ কোঝিকোড়ে -র বিমানবন্দর টেবিল ল্য়ান্ডের ওপর। বড় পাহাড় না হলেও এটা ছোট একটি পাহাড়ের ওপর চ্যাপ্টা সমতল ভূমি বলা যায় একে৷ এই ধরণের বিমানবন্দরে ল্যান্ডিং করানো খুবই বিপদজনক, এমনটাই জানাচ্ছেন বিমান চালকরা৷

    আর এই ধরনের বিমানবন্দরের পাশে খাদ থাকায় ল্যান্ডিংয়ের সামান্য় গণ্ডগোলেই হয়ে যেতে পারে মারাত্মক বিপর্যয়৷ কোঝিকোড়ে এই বিমানবন্দরের চারদিকে অসংখ্য খাদ রয়েছে৷ এই টেবিল টপ মাউন্টেনে ল্যান্ডিং হয়ে যাওয়ার পর রানওয়েতে আর প্রায় কোনও জায়গাই থাকে না৷ তাই এই ধরনের বিমানবন্দরে বিমান অবতরণের ক্ষেত্রে সিনিয়র পাইলটকেই দায়িত্ব দেওয়া হয়৷

    ম্যাঙ্গালোরেও এই ধরনের রানওয়ের ওপর থেকেই আগের দুর্ঘটনাটি ঘটে যায়৷ শুক্রবারের ঘটনার পর ডিজিসিএ-র নির্দেশক অরুণ কুমার জানিয়েছেন, ল্যান্ডিং সঠিকভাবে না হওয়ার কারণেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে৷ প্রবল বৃষ্টি হচ্ছিল, আর তার কারণেই ৩৫ ফুট দূরের খাদে পড়ে যায় এয়ার ইন্ডিয়ার এক্সপ্রেস বিমানটি৷

    দুবাই থেকে যাত্রী নিয়ে ভারতে আসার পরেই এয়ারইন্ডিয়ার বিমান কোঝিকোড়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনার শিকার হয়৷ অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রক থেকে প্রাথমিক পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে জানা গিয়েছে, ল্যান্ডিংয়ের সময় বিমানে কোনও আগুন লাগেনি৷ মন্ত্রকের পক্ষ থেকে জারি করা বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘এয়ার ইন্ডিয়ার এক্সপ্রেস ফ্লাইট X 1344 যা B737 এয়ারক্রাফট দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয় তা দুবাই থেকে কালিকটে আসছিল, সেটি কোঝিকোড়ে রানওয়ে থেকে বেরিয়ে যায়৷ ল্যান্ডিংয়ের সময় বিমানে কোনও আগুন লাগেনি৷ ’

    এদিকে কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন রাতে জানান যে উদ্ধারকার্য শেষ হয়ে গেছে৷ তিনি জানিয়েছেন, মামল্লপুরমের উদ্ধারকারী দল তাঁকে এই বিষয়ে জানিয়েছেন৷

    এদিকে হাসপাতালে আহতদের চিকিৎসা চলছে যথেষ্ট গতিতে৷ তবে করোনা পরিস্থিতি এই আহতদের চিকিৎসা করানো বড় চ্যালেঞ্জ হাসপাতালের৷

    Published by:Debalina Datta
    First published: