corona virus btn
corona virus btn
Loading

পুরীতে কারফিউ, মাস্ক পরে রথ টানবেন মাত্র দেড় হাজার সেবায়েত

পুরীতে কারফিউ, মাস্ক পরে রথ টানবেন মাত্র দেড় হাজার সেবায়েত

সোমবার রাত ৯ থেকে শুরু হবে কারফিউ যা চলবে ২৪ জুন দুপুর ২ পর্যন্ত৷ অর্থাৎ কারফিউর মধ্যেই হবে রথযাত্রা৷ সতর্কতায় কোনও ফাঁক রাখতে চাইছে না ওড়িশা সরকার৷

  • Share this:

#পুরী: প্রথমে পুরীর রথযাত্রা বন্ধ রাখার নির্দেশ দিলেও, পরবর্তীতে শর্ত সাপেক্ষে রথযাত্রার অনুমতি দিল সুপ্রিম কোর্ট৷ রথের মাত্র ১ দিন আগে সেই সুপ্রিম নির্দেশে কিছুটা স্বস্তি পেয়েছেন জগন্নাথ ভক্তরা৷ কারণ ঐতিহ্যের রথযাত্রা শুধুমাত্র একটি উৎসব নয়, এর সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে বহু মানুষের ধর্মীয় বিশ্বাস৷ তবে করোনা আহবে যাতে সংক্রমণের প্রভাব না বাড়ে, সেই শর্তে শেষ পর্যন্ত রথ উৎসবে অনুমতি দিল সুপ্রিম কোর্ট৷

যদি ২৩জুন রথের চাকা না ঘোরে, অর্থাৎ রথ না টানা হয়, তাহলে তা ১২ বছর পর্যন্ত আর চলতে পারবে না৷ এমনই রীতি নিয়ম রয়েছে৷ যার মানে দাঁড়ায় এবছর রথ পালন না করা হলে, তা আগামী ১২ বছরও উদযাপন করা যাবে না৷ তাই সংক্রমণ যাতে না ছড়ায়, তার সুব্যবস্থা করে, রথ উৎসবের অনুমতি দিক সুপ্রিম কোর্ট, এই আবেদন রাখে কেন্দ্র৷ শুনানির সময় কেন্দ্রের পক্ষ থেকে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা রথযাত্রার সপক্ষে এই যুক্তি তুলে ধরেন৷ শেষ পর্যন্ত নানা যুক্তি মেনে পুরীতে রথের অনুমতি মেলে৷

এবারের রথযাত্রায় বেশ কিছু নিয়ম জারি হয়েছে এবং যা কড়া ভাবে মানতে হবে৷ যার মধ্যে অবশ্যই থাকবে মাস্ক পরার নিয়ম৷ রথ টানতে পারবেন মাত্র ১৫হাজার জন সেবায়েত৷ এদের সকলের করোনা পরীক্ষা হয়েছে৷ এবং তাদের সাহায্য করছে পুলিশ৷ জানানো হয়েছে যে, প্রতিবারের মতো ৩ কিলোমিটার রাস্তা চলবে রথ৷ কিন্তু মন্দির লাগোয়া বাড়ি বা হোটেলর ছাদ থেকে যে রথযাত্রা দেখার যে হিড়িক রয়েছে তা একেবারে করা যাবে না৷ সকাল ৭টায় রথে বসানো হবে জগন্নাথদেবকে৷ বেলা ১২টায় শুরু হবে রথযাত্রা৷ যেই সব নিয়ম জারি হয়েছে...

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পর মন্দির কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ইতিমধ্যেই ফোনে কথা হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়কের৷ রথযাত্রায় প্রবল ভিড় এড়াতে সম্পূর্ণ বন্ধ রাখা হচ্ছে পুরী৷ একেবারে শাটডাউন থাকবে শহর৷ ঢোকা বেরনোর সব রাস্তা বন্ধ থাকবে৷ এমনকী রাস্তায় যান চলাচল করতে পারবে না৷ পুরীতে কারফিউ জারি করল ওড়িশা সরকার৷

ভুবনেশ্বরের পর কোন ও বাস ট্রেন পুরীর দিকে যেতে দেওয়া হচ্ছে না । গোটা শহরের সব বড় মোড়ে নাকা চেক পোস্ট বসানো হয়েছে ।যাতে কেউ জমায়েত না করতে পারে । বাঁশের রেলিং দিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে শহরের সব গলির মুখ । জগন্নাথ মন্দিরের সামনে থেকে গুন্ডচা মন্দির পর্যন্ত এই তিন কিলোমিটার রাস্তা সংলগ্ন সমস্ত গলি কড়া পুলিশি পাহারায় রাখা হচ্ছে যাতে কেউ ঘর থেকে বেড়োতে পারে । সোমবার সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর স্বাস্থ্য বিধি মেনে কী ভাবে রথযাত্রা করা যায় তা নিয়ে জরুরি বৈঠকে বসেন জেলা প্রশাসন ও জগন্নাথ মন্দির কর্তৃপক্ষ । এই বৈঠকের পরই একচল্লিশ ঘণ্টার কারফিউ ঘোষণা করে প্রশাসন ।

সোমবার রাত ৯ থেকে শুরু হবে কারফিউ যা চলবে ২৪ জুন দুপুর ২ পর্যন্ত৷ অর্থাৎ কারফিউর মধ্যেই হবে রথযাত্রা৷ সতর্কতায় কোনও ফাঁক রাখতে চাইছে না ওড়িশা সরকার৷ স্নানযাত্রা উৎসবে সেবায়েতদের মুখে ছিল না মাস্ক৷ তা নিয়ে উঠেছিল নিন্দার রোল৷ তবে এবার আর তাই নয়৷ রীতিমতো কড়া নিয়ম মেনে তাই রথের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে পুরী শহর৷

তথ্য-সৌরভ গুহ

Published by: Pooja Basu
First published: June 22, 2020, 9:19 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर