• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • 'বল্লভভাই না-থাকলে চারমিনার দেখতেও ভিসা লাগত'

'বল্লভভাই না-থাকলে চারমিনার দেখতেও ভিসা লাগত'

স্ট্যাচু অফ ইউনিটি-র সামনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

স্ট্যাচু অফ ইউনিটি-র সামনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

  • Share this:

    #সুরাট: বিশ্বের সর্বোচ্চ মূর্তি 'স্ট্যাচু অফ ইউনিটি' উন্মোচনের অনুষ্ঠানে সর্দার বল্লভভাই পটেলকে স্মরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ বললেন, সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল দেশকে একতা না-করলে আজ গির-এর সিংহ বা হায়দরাবাদের চারমিনার দেখতেও ভিসা লাগত৷

    বুধবারই গুজরাটের কাবাড়িয়ায় সর্দার প্যাটেলের মূর্তি উন্মোচন করেন প্রধানমন্ত্রী৷ বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু এই মূর্তির উচ্চতা প্রায় ৬০০ ফুট৷ লৌহমানবের সাহসিকতাকে স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'এই মূর্তি তৈরির উদ্দেশ্য হল, গোটা বিশ্বকে জানানো, ভারত এক ছিল, এক আছে, এক থাকবে৷'

    বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু মূর্তি স্ট্যাচু অফ ইউনিটি৷ মার্কিন মুলুকের স্ট্যাচু অফ লিবার্টির চেয়েও উঁচু৷ মূর্তিটি তৈরি করেছে ইনজিনিয়ারিং সংস্থা L&T৷ এমন ভাবে তৈরি করা হয়েছে, রিখটার স্কেলে ৬.৫ মাত্রার ভূমিকম্পেও কোনও ক্ষতি হবে না মূর্তির৷ এমন একটি জায়গায় মূর্তিটি রাখা হচ্ছে, যেখানে মধ্যপ্রদেশ, গুজরাট ও মহারাষ্ট্রের সংযোগস্থল৷ ১৩৫ মেট্রিক টন লোহা লেগেছে৷ প্রধানমন্ত্রী এই মূর্তিকে ভারতের ইঞ্জিনিয়ারিং ও প্রযুক্তির প্রতীক বলেও অভিহিত করেন৷ গুজরাটের নর্মদা জেলায় সর্দার সরোবর বাঁধের কাছে এই মূর্তি৷

    ২০১০ সালে আহমেদাবাদে পুরভোটের মুখে মূর্তিটি তৈরির কথা ঘোষণা করেছিলেন গুজরাটের তত্‍কালীন মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ ১ লক্ষ ৬৯ হাজারটি গ্রামের প্রায় ১ কোটি কৃষক ১২৯ টন লোহা দান করেছেন৷

    First published: