corona virus btn
corona virus btn
Loading

JEE, NEET পিছোতে সুপ্রিম কোর্টে রিভিউ পিটিশন পশ্চিমবঙ্গ সহ ৬ রাজ্যের

JEE, NEET পিছোতে সুপ্রিম কোর্টে রিভিউ পিটিশন পশ্চিমবঙ্গ সহ ৬ রাজ্যের
সুপ্রিম কোর্টে আবেদন ৬ রাজ্যের৷

ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি জানিয়ে দিয়েছে, ১ থেকে ৬ সেপ্টেম্বরের মধ্যে JEE(Main) এবং ১৩ সেপ্টেম্বর NEET(UG) পরীক্ষা নেওয়া হবে৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: নিট এবং জেইই পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার জন্য সুপ্রিম কোর্টে রিভিউ পিটিশন দাখিল করল পশ্চিমবঙ্গ সহ ছ'টি রাজ্য৷ বিরোধী দলগুলির দ্বারা শাসিত এই ছয় রাজ্যের মধ্যে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খণ্ড, মহারাষ্ট্র, ছত্তীসগড়, পাঞ্জাব এবং রাজস্থান৷

JEE(Main) এবং NEET(UG) পরীক্ষা গ্রহণ নেওয়ার পক্ষে গত ১৭ অগাস্ট সুপ্রিম কোর্ট যে রায় দিয়েছিল, তা পুনর্বিবেচনার আবেদন জানানো হয়েছে এই রিভিউ পিটিশনে৷ বিরোধী শাসিত রাজ্যগুলি এবং বিভিন্ন মহল থেকে দাবি উঠলেও ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি জানিয়ে দিয়েছে, সেপ্টেম্বর মাসে নির্ধারিত দিনেই সর্বভারতীয় স্তরে ইঞ্জিনিয়ারিং এবং মেডিক্যালের প্রবেশিকা পরীক্ষাগুলি নেওয়া হবে৷

করোনা অতিমারির মধ্যে এই পরীক্ষাগুলি পিছিয়ে দেওয়ার আবেদন খারিজ করে দিয়ে গত ১৭ অগাস্ট শীর্ষ আদালত জানিয়েছিল, ছাত্রছাত্রীদের একটা বছর নষ্ট করার মানে হয় না৷ শুধু তাই নয়, সুপ্রিম কোর্ট নিজেদের পর্যবেক্ষণে বলেছিল, করোনা অতিমারির মধ্যেও 'জীবন থেমে থাকতে পারে না৷'

গত বুধবার বিষয়টি নিয়ে ভার্চুয়াল বৈঠকে মিলিত হন বিজেপি বিরোধী রাজ্যগুলির মুখ্যমন্ত্রীরা৷ সেখানে উপস্থিত ছিলেন কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধিও৷ সেই বৈঠকেই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রস্তাবে সাড়া দিয়ে সুপ্রিম কোর্টে পাল্টা রিভিউ পিটিশন করার পক্ষেই মত দেন বৈঠকে উপস্থিত অধিকাংশ মুখ্যমন্ত্রী৷

ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি জানিয়ে দিয়েছে, ১ থেকে ৬ সেপ্টেম্বরের মধ্যে JEE(Main) এবং ১৩ সেপ্টেম্বর NEET(UG) পরীক্ষা নেওয়া হবে৷ বিরোধীদের অভিযোগ, করোনা অতিমারির মধ্যে এই পরীক্ষা নিয়ে ছাত্রছাত্রীদের জীবন ঝুঁকির মধ্যে ফেলা হচ্ছে৷ পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষাগ্রহণ কেন্দ্রে পৌঁছতেও অসুবিধা হবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হচ্ছে৷ ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি অবশ্য জানিয়েছে, সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনেই পরীক্ষা নেওয়া হবে৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: August 28, 2020, 1:35 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर