মহিলাদের 'ফাটা জিন্স' নিয়ে মন্তব্য, বিতর্কের মুখে উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী তিরথ সিং

মহিলাদের 'ফাটা জিন্স' নিয়ে মন্তব্য, বিতর্কের মুখে উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী তিরথ সিং

তিরথ সিং রাওয়াতের দাবি পশ্চিমী সভ্যতার প্রভাব প্রবলভাবে ভারতের যুব সমাজের ওপর পড়ছে। তার জেরেই ঘটছে একের পর এক নারী নিগ্রহের ঘটনা।

তিরথ সিং রাওয়াতের দাবি পশ্চিমী সভ্যতার প্রভাব প্রবলভাবে ভারতের যুব সমাজের ওপর পড়ছে। তার জেরেই ঘটছে একের পর এক নারী নিগ্রহের ঘটনা।

  • Share this:

    #দেরাদুন : মাত্র সপ্তাহখানেক হয়েছে উত্তরাখণ্ডে মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্বভার নিয়েছেন তিরথ সিং রাওয়াত। তাঁর পূর্বতন, ত্রিবেন্দ্র সিং-এর পদত্যাগের পর মাত্র একবছরের জন্য এই দায়িত্ব পালন করতে চলেছেন তিনি। অথচ এরইমধ্যে বড়োসড়ো বিতর্কের ঝড় তুললেন এই বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা।

    মহিলাদের ওপর অশালীন আচরণের অন্যতম কারণ হিসেবে তাঁদের ছেঁড়া ফাটা জিনসের ফ্যাশনকেও কার্যত দায়ী করলেন তিরথ সিং। তিরথ সিং রাওয়াতের দাবি পশ্চিমী সভ্যতার প্রভাব প্রবলভাবে ভারতের যুব সমাজের ওপর পড়ছে। তার জেরেই ঘটছে একের পর এক নারী নিগ্রহের ঘটনা। তাঁর প্রশ্ন, স্কুলের শিক্ষিকরাও যদি এমন ধরণের পোশাক পরেন তবে তা সমাজের আগামী প্রজন্মের চরিত্র গঠনে কুপ্রভাব ফেলতে পারে। মেয়েদের সাজ পোশাক নিয়ে এমন তীর্যক মন্তব্য করে রাওয়াত এই প্রসঙ্গে কড়া বার্তা দেন। এই প্রসঙ্গে বিমানে এক সমাজসেবী মহিলাকে 'রিপড জিনস' পরতে দেখার কথাও উল্লেখ করেন তিনি। তাঁর বক্তব্য এই ধরণের ব্যক্তি ওই পোশাকে কারও সাহায্যের জন্য গেলে তাতেই বা কী প্রভাব পড়বে তাঁর মনের ওপর? উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ওই উড়ানটিতে মহিলার সঙ্গে ছিলেন তাঁর সন্তানরাও। যা আরও অবাক করেছে তাঁকে।

    মহিলাদের ওপর হেনস্থা শীর্ষক একটি সেমিনারে অংশ গ্রহণ করে সেই মহিলার প্রসঙ্গ টেনে তিরথ সিং রাওয়াত বলেন, "এই ধরনের মহিলারা যদি সমাজে বের হন, আর তাঁদের সমস্যার সমাধান করার কথা বলেন, তাহলে কোন ধরনের বার্তা আমরা সমাজকে দেব, বা আমাদের সন্তানদের দেব? এটা ঘরের চার দেওয়ালের মধ্যে থেকেই শুরু হয়। যে সন্তান বাড়িতে সঠিক সংস্কৃতির পাঠ পায়, সে যতই আধুনিক হোক না কেন, জীবনে কখনও ব্যর্থ হয় না।"

    বিজেপি শাসিত উত্তরাখণ্ডের নয়া মুখ্যমন্ত্রীর এই বার্তা শুনেই রীতিমতো তোলপাড় হতে থাকে রাজনৈতিক মহল। ওঠে বিতর্কের ঝড়। তিরথ সিং রাওয়াতের মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করেন সঞ্জয় ঝা-সহ বহু রাজনৈতিক ও অরাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published:

    লেটেস্ট খবর