Home /News /national /
শিনা হত্যায় সামনে এল ‘ব্ল্যাকমেল’ তথ্য

শিনা হত্যায় সামনে এল ‘ব্ল্যাকমেল’ তথ্য

শিনা বোরা হত্যা মামলায় সামনে এল আরও কিছু নতুন তথ্য। পিটার মুখোপাধ্যায়ের ছেলে এবং শিনার ‘বাগদত্ত’ রাহুল মুখোপাধ্যায় রবিবার সিবিআই-এর তুলে দিলেন বেশ কিছু নথি। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সূত্রে খবর, এই নথি থেকেই স্পষ্ট হয়েছে শিনা ব্ল্যাকমেল করতেন ইন্দ্রাণীকে।

আরও পড়ুন...
  • Last Updated :
  • Share this:
    #মুম্বই:  শিনা বোরা হত্যা মামলায় সামনে এল আরও কিছু নতুন তথ্য। পিটার মুখোপাধ্যায়ের ছেলে এবং শিনার ‘বাগদত্ত’ রাহুল মুখোপাধ্যায় রবিবার সিবিআই-এর তুলে দিলেন বেশ কিছু নথি। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সূত্রে খবর, এই নথি থেকেই স্পষ্ট হয়েছে শিনা ব্ল্যাকমেল করতেন ইন্দ্রাণীকে।
    রবিবার সিবিআই দফতরে এসে পিটার-পুত্র রাহুল গোয়েন্দাদের হাতে তুলে দেন বেশ কিছু নথি। যা থেকে স্পষ্ট, শিনা যে ইন্দ্রাণীর বোন নন বরং ইন্দ্রাণীর মেয়ে, এই তথ্যকে হাতিয়ার করে ক্রমাগত ব্ল্যাকমেল করতেন শিনা। সকলের সামনে সত্যি ফাঁস করে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ক্রমাগত ইন্দ্রাণীকে চাপ দিতেন তিনি। তদন্তে প্রকাশ, মুম্বইয়ে একটি তিন কামরার ফ্ল্যাট চেয়ে ইন্দ্রাণীকে ব্ল্যাকমেলও করছিল তার মেয়ে শিনা। এই সব নথি তদন্তে সাক্ষ্য-প্রমাণ হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে বলে মনে করছে সিবিআই।
    রাহুলের দেওয়া তথ্যপ্রমাণ সিবিআই-এর চার্জশিটের ভিত্তিকে আরও মজবুত করল। চার্জশিটে দাবি করেছিল সিবিআই, ইন্দ্রাণী ভয় পেয়েছিলেন রাহুল আর শিনার বিয়ে হলে পিটারের সব সম্পত্তি চলে যাবে শিনা-রাহুলের হাতে। সেক্ষেত্রে সম্পত্তির ভাগ থেকে বঞ্চিত হবেন ইন্দ্রাণীর অন্য কন্যা, বিধি মুখোপাধ্যায়। এই আশঙ্কা থেকেই হয়তো শিনাকে খুনের পরিকল্পনা করেন ইন্দ্রাণী। ষড়যন্ত্রে সঙ্গে রাখেন প্রাক্তন স্বামী সঞ্জীব খান্না এবং গাড়ির চালক শ্যাম রাইকে। সিবিআইয়ের দাবি প্রত্যক্ষভাবে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িয়ে ছিলেন পিটার মুখোপাধ্যায়ও। এই সন্দেহে বৃহস্পতিবার তাঁকে গ্রেফতার করে সিবিআই।
    সিবিআই হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে পিটারকে। তাঁদের মতে, খুনের আগে ও পরে পিটারের সঙ্গে ভালই যোগাযোগ ছিল ইন্দ্রাণীর। এমনকী, তদন্তের শুরু থেকে ইন্দ্রাণীকে আড়াল এবং তথ্য গোপনের চেষ্টা করেছেন পিটার বলে দাবি সিবিআই-য়ের। রাহুলকে রবিবার পুনরায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়েছিল সিবিআই দফতরে। রাহুল, শিনার ইন্দ্রাণীকে ব্ল্যাকমেল করার তথ্য ছাড়াও হত্যারহস্যের সঙ্গে যুক্ত অন্য গুরুত্বপূর্ণ নথি ও তথ্য, এদিন সিবিআই-এর হাতে তুলে দিয়েছেন। তাতে তদন্তের জাল গোটানো অনেকটাই সহজ হবে বলে মনে করছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। যদিও রাহুল পিটার মুখোপাধ্যায়ের হত্যায় জড়িয়ে থাকার সঙ্গে একমত নন।
    ২৩ নভেম্বর পিটারের সিবিআই হেফাজতের মেয়াদ শেষ হতে চলেছে। সূত্রের খবর, মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন করবে সিবিআই। অন্যদিকে চার্জশিটে উঠে আসা নতুন দুই সন্দেহভাজন, ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়ের প্রাক্তন সচিব কাজল শর্মা এবং গাড়িচালক শ্যাম রাইয়ের সঙ্গী প্রদীপ বাগমারেকেও জিজ্ঞাসাবাদ করছে সিবিআই। শিনা হত্যারহস্য এবার সমাধানের পথে বেশ খানিকাট এগিয়ে গিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।
    প্রতিবেদন: এলিনা দত্ত
    First published:

    Tags: Indrani Mukherjea, Murder, Sheena Bora