পড়তে বলেছিলেন মা, এটাই 'অপরাধ'! রাগে নিজেকে গুলি করে আত্মঘাতী মেয়ে

পড়তে বলেছিলেন মা, এটাই 'অপরাধ'! রাগে নিজেকে গুলি করে আত্মঘাতী মেয়ে

ঝগড়া থেমে গেলেও রাগে ফুঁসতে থাকা মেয়ে, মা'কে শাস্তি দেওয়ার জন্য নিজেকে গুলি করে আত্মঘাতী হয়। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের মোরদাবাদ জেলায়।

ঝগড়া থেমে গেলেও রাগে ফুঁসতে থাকা মেয়ে, মা'কে শাস্তি দেওয়ার জন্য নিজেকে গুলি করে আত্মঘাতী হয়। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের মোরদাবাদ জেলায়।

  • Share this:

    #বরেলি: 'পড়তে বস', এই কথাটা বলাই ছিল মায়ের অন্যায়। মেয়েকে পড়তে বসার জন্য বকাবকি করছিলেন মা। বেশ কিছু ক্ষণ ধরে এই নিয়ে মা-মেয়ের মধ্যে চলছিল কথা কাটাকাটি। তার পরে ঝগড়া থেমে গেলেও রাগে ফুঁসতে থাকা মেয়ে, মা'কে শাস্তি দেওয়ার জন্য নিজেকে গুলি করে আত্মঘাতী হয়। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের মোরাদাবাদ জেলায়। শনিবার দিন এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। ১৭ বছরের ওই মেয়েটি দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রী। মোরাদাবাদ জেলায় মুন্ডা পাণ্ডে থানার অন্তর্গত বাজপুর মান গ্রামের বাসিন্দা ছিল মেয়েটি। পুলিশ জানিয়েছে, পড়াশোনা না করায় মেয়েটির মা তাঁকে ধমক দেয়। আর তার পরেই এই চূড়ান্ত পদক্ষেপ নেয় সে।

    পুলিশ সূত্রে খবর, শনিবার দিন বিকেলে ওই মেয়েটি তার বাড়ির ছাদে একা একা বসেছিল। তখনই মেয়েটির মা ছাদে গিয়ে বন্ধুর সামনে বকাঝকা শুরু করে দেয় এবং জোর করে তাঁকে নিচে নামিয়ে এনে পড়তে বসার জন্য বলে। রেগে গিয়ে মেয়েটি বাবার ঘরে যায়। সেখানেই রাখা ছিল অবৈধ একটি বন্দুক। ওই বন্ধুক থেকেই সে নিজের পেটে গুলি করে। মেয়েটির বাবা কাজের সুত্রে বাইরে ছিলেন। তাঁকে ফোনে জানানো হয়েছিল। পরে মেয়েটিকে জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করে।

    পরিবারের সদস্য জানিয়েছেন, মেয়েটি কোনওরকম মানসিক চাপের মধ্যে ছিল না। অন্তত পরিবারের লোকেরা তাই জানেন। কিন্তু কেবলমাত্র পড়াশোনা নিয়ে মা বকাবকি করেছে বলে সে এই পদক্ষেপ নেয়! এই বিষয়ে তদন্ত করছে পুলিশ।

    পুলিশ জানিয়েছে, কিশোরীর মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে এবং ওই অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। লাইসেন্স বিহীন অস্ত্র বাড়িতে কেন রাখা হয়েছিল সেই বিষয়েও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

    Published by:Somosree Das
    First published: