Home /News /national /
লালকেল্লার সংরক্ষণই শুধুমাত্র বেসরকারি সংস্থার হাতে, দাবি সরকারের

লালকেল্লার সংরক্ষণই শুধুমাত্র বেসরকারি সংস্থার হাতে, দাবি সরকারের

File Photo Of Red Fort

File Photo Of Red Fort

লালকেল্লা সংরক্ষণের দায়িত্ব কর্পোরেট সংস্থার হাতে তুলে দেওয়ার সরকারি সিদ্ধান্তের তীব্র সমালোচনা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে শুরু করে অন্যান্য বিরোধী দলের নেতারা ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: ঐতিহ্যের লালকেল্লা সংরক্ষণের দায়িত্ব কর্পোরেট সংস্থার হাতে তুলে দেওয়ার সরকারি সিদ্ধান্তের তীব্র সমালোচনা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে শুরু করে অন্যান্য বিরোধী দলের নেতারা ৷ টুইটে সরকারের এই সিদ্ধান্তকে দুঃখের এবং ভারতীয় ইতিহাসের কালো দিন হিসেবে মন্তব্য করেছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর প্রশ্ন, লালকেল্লার মতো একটি ঐতিহাসিক সৌধের রক্ষণাবেক্ষণও কি সরকার করতে পারে না ? লালকেল্লায় স্বাধীনতা দিবসের দিন জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। দেশের অন্যতম একটি প্রতীক এই সৌধ। এমন একটি ঐতিহাসিক সৌধকে লিজ দেওয়া কি উচিত ?  সেই প্রশ্নও তুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

    আরও পড়ুন-'আত্মহত্য়া কে না করে' বিজেপি মন্ত্রীর বেফাঁস মন্তব্য়ে সমালোচনার ঝড় সব মহলে

    বিরোধীদের তোলা অভিযোগের জবাবে কেন্দ্রীয় পর্যটন দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, ডালমিয়া ভারত লিমিটেডের সঙ্গে যে চুক্তি হয়েছে, তাতে স্মৃতিসৌধগুলির রক্ষণাবেক্ষণের জন্য এবং পর্যটকদের জন্য সাজিয়ে তোলার বিষয়টিই ঠিক হয়েছে ৷ চুক্তির মধ্যে থেকেই ওই সংস্থা মনুমেন্টগুলির রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব সামলাবে ৷ ঐতিহাসিক সৌধের প্রযুক্তিগত সংরক্ষণের দায়িত্ব থাকবে আর্কিওলজিকাল সার্ভে অব ইন্ডিয়া-র হাতেই। শুধু পর্যটকদের সুযোগ-সুবিধা, সাজসজ্জার কাজ সরকারি-বেসরকারি সংস্থার যৌথ উদ্যোগে হবে। দেশি-বিদেশি পর্যটকদের সামনে এ দেশের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ভাল ভাবে তুলে ধরতেই এই সিদ্ধান্ত। আগামী পাঁচ বছরে ২৫ কোটি টাকা এর পিছনে বরাদ্দ হয়েছে ৷

    তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টুইট করে বলেন, ‘‘ সরকার কেন ঐতিহাসিক লালকেল্লারও দেখভাল করতে পারছে না ? লালকেল্লা আমাদের জাতীয় প্রতীক। স্বাধীনতা দিবসে এখানেই জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। লালকেল্লা কেন লিজ দেওয়া হবে ? এটা ভারতীয় ইতিহাসের দুঃখের এবং কালো দিন।’’ এর পাশাপাশি তৃণমূলের তরফে আরও দাবি করা হয়েছে যে এই মউ নিয়ে মিথ্যে বলছে কেন্দ্রীয় সরকার ৷ কোনও কমিটির পরামর্শ না নিয়েই সরকার ডালমিয়া সংস্থার সঙ্গে মউ সাক্ষর করেছে ৷

    First published:

    Tags: Dalmia Bharat Group, MOU, Red Fort, Red Fort row

    পরবর্তী খবর