অনাথ ১০ মাসের কুকুরের জন্য পরিবার খুঁজছেন রতন টাটা, সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট শিল্পপতির

অনাথ ১০ মাসের কুকুরের জন্য পরিবার খুঁজছেন রতন টাটা, সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট শিল্পপতির
ছবি: ইনস্টাগ্রাম ।
  • Share this:

#পুণে: তিনি দেশের অন্যতম শিল্পপতি। কিন্তু তা সত্ত্বেও আজও মাটিতে পা রেখেই চলেন রতন টাটা । তা ফের সোশ্যাল মিডিয়ায় বুঝিয়ে দিলেন তিনি । এর আগেও একবার সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে অনাথ এক কুকুরকে পরিবার খুঁজে দিয়েছিলেন তিনি । আবারও পশুপ্রেমী শিল্পপতি ১০ মাসের এক অনাথ ল্যাব্রাডরকে পরিবারে ফেরাতে নেটিজেনদের কাছে আর্জি নিয়ে এলেন । রতন টাটা সোশ্যাল মিডিয়ায় এসেছেন সম্প্রতিই। কিন্তু এরই মধ্যে বেশ জনপ্রিয় তিনি । কিছুদিন আগে নিজের যৌবন বয়সের ছবি পোস্ট করেছিলেন তিনি । সেই ছবিগুলি দারুণ ভাইরাল হয়েছিল । এর আগে মীরা নামের একটি কুকুরকে দত্তক নেওয়ার আর্জি জানিয়েছিলেন তিনি সোশ্যাল মিডিয়ার । এবার ছোট্ট সুরের জন্য পুণেতে একটি সহৃদয় পরিবার খুঁজতে শুরু করেছেন রতন টাটা । তিনি লিখেছেন, ‘ছোট থেকে বহুবার পরিবার বদলে গিয়েছে সুর নামে ওই কুকুরটির। কিন্তু, এখন তাকে দেখাশোনা করার কেউ নেই। গতবার মাইরার জন্য আপনারা একটি সুন্দর পরিবার খুঁজতে সাহায্য করেছিলেন। এবারও আশা রাখি সেই কাজ করবেন। সুরকে যারা দত্তক নিতে চান অথবা তাকে দত্তক নিতে ইচ্ছুক কোনও পরিবারকে চেনেন, তাহলে আমাকে জানান।’

একটা ফর্মও ওই পোস্টের সঙ্গে জুড়ে দিয়েছেন টাটা। তাতে উল্লেখ, “রতন টাটা বলছেন বলে, দত্তক নেবেন না। যদি পশুপ্রেমী হন, তবেই দত্তক নেবেন।”

 
View this post on Instagram
 

After having changed families multiple times, “Sur” no longer has a family to look after her. One can still see the spirit and love she carries and the hope to belong somewhere. It is heartbreaking to get attached to someone never to see them again. The last time, all of you generously helped me find Myra a loving family. I hope together we can do the same for “Sur”. If you think you can open your home to her, or know someone who can, give it some serious thought and fill in the link in my bio. I truly wait for the day when we no longer have to do this again. #onehomeatatime

A post shared by Ratan Tata (@ratantata) on

First published: March 18, 2020, 9:16 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर