‌প্রয়াত কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামবিলাস পাসওয়ান

‌প্রয়াত কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামবিলাস পাসওয়ান

সম্প্রতি দিল্লির ফর্টিস হাসপাতালে একটি হার্ট সার্জারি হয় তাঁর।

সম্প্রতি দিল্লির ফর্টিস হাসপাতালে একটি হার্ট সার্জারি হয় তাঁর।

  • Share this:

    #‌নয়াদিল্লি:‌ ‌প্রয়াত হলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামবিলাস পাসওয়ান। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। সম্প্রতি দিল্লির ফর্টিস হাসপাতালে একটি হার্ট সার্জারি হয় তাঁর। বৃহস্পতিবার তাঁর মৃত্যুর খবর ট্যুইট করে জানান তাঁর ছেলে চিরাগ পাসওয়ান। মোদির মন্ত্রীসভার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী ছিলেন রামবিলাস। গত বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে তিনি গুরুতর অসুস্থ ছিলেন। সম্প্রতি দিল্লির ফর্টিস হাসপাতালে তাঁর হার্ট সার্জারি হয়েছিল। কিন্তু বাঁচানো গেল না তাঁকে। ৭৪ বছর বয়সে এই পৃথিবী ছেড়ে চলে গেলেন তিনি। পাঁচ দশক ধরে তিনি ভারতের রাজনৈতিক জগতে উজ্জ্বল নক্ষত্র ছিলেন। ১৯৬৯ সালে প্রথমবার তিনি বিধায়ক হিসেবে নির্বাচিত হন। তাঁর ছেলে চিরাগ পাসওয়ান লোক জনশক্তি পার্টির প্রধান। তিনি টুইটারে লিখলেন, ‘‌বাবা, আমি জানি, আপনি আর এই পৃথিবীতে নেই। কিন্তু আপনি যেখানেই থাকুন, আমার সঙ্গেই আছেন।’‌।’‌

    উত্তর ভারতের রাজনীতিতে এক দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে রামবিলাস পাসওয়ানের। তাঁর লোক জনশক্তি পার্টির বড় ভূমিকা থাকে উত্তর ভারতের রাজনীতিতে। সম্প্রতি বিহারের নির্বাচনেও তাঁর দল নির্ণায়ক হতে পারে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। রামবিলাসের প্রয়ানের সব মহল থেকে শোক প্রকাশ করা হয়েছে। শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি ট্যুইটারে লিখেছেন, ‘‌আমি শব্দে প্রকাশ করতে পারবো না, কতটা শোক পেয়েছি। আমাদের দেশে যে শূন্যতা তৈরি হল, তা কখনই আর পূর্ণ হবে না। শ্রী রামবিলাস পাসওয়ানের মৃত্যু একটি ব্যক্তিগত ক্ষতি। আমার বন্ধু বিয়োগ হল। হারালাম একজন সহকর্মী যিনি গরিব মানুষকে সম্মানের সঙ্গে জীবন কাটাতে সাহায্য করতেন।’‌

    ট্যুইট করেছেন রাহুল গান্ধী রামবিলাস পাসওয়ানের অকাল মৃত্যু দুঃখজনক। গরিব ও দলিত মানুষেরা আজ এক শক্তিশালী রাজনৈতিক কণ্ঠকে হারাল। পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাই।’‌ মায়াবতী ট্যুইট করে জানিয়েছেন, ‘‌কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামবিলাস পাসওয়ানের মৃত্যু দুঃখজনক। আমি তাঁর দল ও পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাই।’‌

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: