• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • RAM NATH KOVIND GREETS MAMATA BANERJEE FOR HER ASSEMBLY ELECTION VICTORY SDG

Ram Nath Kovind greets Mamata Banerjee|| 'মমতাদি কেমন আছেন? ওঁকে নির্বাচনী জয়ের শুভেচ্ছা', কোবিন্দের সৌজন্যে আপ্লুত তৃণমূল

মমতাকে শুভেচ্ছা রাষ্ট্রপতির।

সোমবার দুপুরে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতার নামে নালিশ জানাতে গিয়েছিলেন তৃণমূলের প্রতিনিধিরা। তাদের দেখেই রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ (Ram Nath Kovind) উঠে দাঁড়িয়ে এগিয়ে আসেন স্বাগত জানাতে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: সোমবার দুপুরে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতার নামে নালিশ জানাতে গিয়েছিলেন তৃণমূলের প্রতিনিধিরা। তাঁদের দেখেই রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ (Ram Nath Kovind) উঠে দাঁড়িয়ে এগিয়ে আসেন স্বাগত জানাতে। তারপর জিজ্ঞাসা করেন 'মমতাদি কেমন আছেন? ওঁকে নির্বাচনে জয়ের অনেক শুভেচ্ছা জানাবেন।'

সোমবার দুপুরে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতার নামে নালিশ জানাতে গিয়েছিলেন তৃণমূলের প্রতিনিধিরা। তাদের দেখেই রাষ্ট্রপতি উঠে দাঁড়িয়ে এগিয়ে আসেন স্বাগত জানাতে। তারপর জিজ্ঞাসা করেন মমতাদি কেমন আছেন? ওঁকে নির্বাচনে জয়ের অনেক শুভেচ্ছা জানাবেন। সূত্রের খবর, রাষ্ট্রপতির এই সৌজন্যে খানিক অবাক হয়েছেন তৃণমূলের দুই প্রতিনিধি শুখেন্দুশেখর রায় ও মহুয়া মৈত্র। সোমবার দুপুর সাড়ে বারোটা নাগাদ রাষ্ট্রপতি ভবনে পৌঁছন সুখেন্দু ও মহুয়া। মূলত তারা সলিসিটর জেনারেলের বিরুদ্ধে নালিশ জানাতে গিয়েছিলেন। রাষ্ট্রপতির হাতে একটি স্মারকলিপি তুলে দেওয়াই তাদের উদ্দেশ্য ছিল। স্মারকলিপির মূল দাবি সলিসিটর জেনারেল পদ থেকে তুষার মেহেতাকে যেন অপসারণ করা হয়।

তৃণমূলের অভিযোগ, দিন কয়েক আগে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী দিল্লি সফরে এসে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সঙ্গে দেখা করার কিছুক্ষণ পরেই দৌড়ে যান সলিসিটর জেনারেলের  বাড়িতে। ৬ নম্বর, কৃষ্ণ মেনন মার্গ থেকে ১০ নম্বর, আকবর রোড। লুটিয়েন্স দিল্লির বুকে মাত্র কয়েক মিনিটের এই যাত্রা শুভেন্দু এবং সলিসিটর জেনারেল দু'জনকেই চরম অস্বস্তিতে ফেলে দিয়েছে। সংবাদমাধ্যমের সামনে সলিসিটর জেনারেলের বাড়িতে শুভেন্দু ঢুকে যাওয়া একদিকে যেমন তুমুল বিতর্ক সৃষ্টি করেছে অন্যদিকে, সিবিআই এবং ইডি-র তরফে আইনজীবী হিসেবে তুষার মেহতার বিশ্বাসযোগ্যতা প্রশ্নের মুখে এসে দাঁড়িয়েছে। পুরো বিষয়টিকে হাতিয়ার করেছে তৃণমূল। তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুনাল ঘোষ থেকে দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় পর্যন্ত তুষার তাকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন। বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে আইনি ক্ষেত্রে দেশের সর্বোচ্চ দ্বিতীয় আধিকারিক তুষার মেহতার গোপন আঁতাতের তত্ত্ব খাড়া করেছে তৃণমূল।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর টুইটে লিখেছেন, 'তুষার মেহতা সলিসিটর জেনারেল নন বিজেপির সিক্রেট জেনারেল। একইসঙ্গে তিনি তাঁর বাড়ির সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশের দাবি জানিয়েছেন। যদিও বিজেপি শুভেন্দু অধিকারী এবং সলিসিটর জেনারেল তৃণমূলের এই অভিযোগে কান দিতে নারাজ। তুষার মেহতা এবং শুভেন্দু অধিকারী দুজনেই বৈঠকের কথা অস্বীকার করেছেন। সোমবার তুষার মেহেতা ইস্যুতে রাষ্ট্রপতির কাছে গিয়েছিল তৃণমূলের প্রতিনিধি দল। তার আগে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়ে প্রচার মেহেতাকে অপসারণের দাবি জানিয়েছে দল। রাজনৈতিক এবং আইনি এই টানাপোড়েনের মধ্যেও রাষ্ট্রপতির এই সৌজন্য কোথাও একটা দাগ কেটেছে।

Rajib Chakraborty

Published by:Shubhagata Dey
First published: