ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ছিল, আছে, থাকবে! সংসদে দাঁড়িয়ে বললেন নরেন্দ্র মোদি

ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ছিল, আছে, থাকবে! সংসদে দাঁড়িয়ে বললেন নরেন্দ্র মোদি

সংসদে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷

দিন কৃষি আইন ঘিরে যে সংশয়গুলি বিভিন্ন মহলে তৈরি হয়েছে, তার সবকটি নিয়েই জবাব দেওয়ার চেষ্টা করেছেন প্রধানমন্ত্রী৷

  • Share this:

    #দিল্লি: ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ছিল, আছে এবং থাকবে৷ সংসদে দাঁড়িয়ে এমনই দাবি করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ একই সঙ্গে নতুন কৃষি আইন নিয়ে কৃষকদের মূল আশঙ্কা দূর করারও চেষ্টা করলেন তিনি৷

    এ দিন কৃষি আইন ঘিরে যে সংশয়গুলি বিভিন্ন মহলে তৈরি হয়েছে, তার সবকটি নিয়েই জবাব দেওয়ার চেষ্টা করেছেন তিনি৷ এক ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে বক্তব্য রাখেন তিনি৷ ফলে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে আপাতত কৃষি আইন কার্যকর করার প্রক্রিয়া স্থগিত রাখলেও কেন্দ্র যে কোনওভাবেই আইন প্রত্যাহারের পথে হাঁটবে না, তা স্পষ্ট করে দিয়েছেন মোদি৷

    সংসদের ভাষণে বিরোধীদের সঙ্গেই আন্দোলনকারী কৃষকদেরও বার্তা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী৷ তিনি দাবি করেছেন সরকার এখনও আলোচনায় রাজি, গঠনমূলক পরামর্শও শুনতে তৈরি তারা৷ নরেন্দ্র মোদি বলেন, 'আন্দোলন করার অধিকার সবার আছে৷ কিন্তু যেভাবে বয়স্ক মানুষ ওখানে বসে আছেন, তাঁদেরকে ফিরিয়ে নিয়ে যান৷ ভবিষ্যতে সবাই একসঙ্গে বসে কথা বলা যাবে৷ আগেও বলেছি, আজ সংসদে দাঁড়িয়ে ফের বলছি৷'

    একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী দাবি করেছেন, মূল কী দাবিতে আন্দোলন, সেটাই স্পষ্ট হচ্ছে না৷ প্রধানমন্ত্রী বলেন, কীভাবে আন্দোলন চলছে, বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে কী ব্যবহার করা হচ্ছে, এসব নিয়ে আলোচনা চলছে৷ কিন্তু মূল বিষয়টি নিয়ে কেউ বিশদে কিছু বলছেন না৷ এমন কি, কৃষিমন্ত্রী যে প্রশ্নগুলি তুলেছেন সেগুলির কোনও জবাব মিলছে না বলে দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রী৷ নরেন্দ্র মোদি এ দিন রাজ্য সভায় দাঁড়িয়ে কংগ্রেসকে বিঁধে বলেন, এখন আন্দোলনকারীদের সমর্থন করলেও কংগ্রেসের উচিত কৃষি সংস্কার নিয়ে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং কী বলেছিলেন তা একবার শুনে নেওয়া৷ প্রধানমন্ত্রী দাবি করেন, কৃষকদের জীবনযাপনের মান অবিলম্বে উন্নত করা প্রয়োজন৷ পাশাপাশি কৃষকদের উন্নতি তাঁর সরকার ফসল বিমায় পরিবর্তন, কৃষক সম্মান নিধি চালু করার মতো কী কী উদ্যোগ নিয়েছে, এ দিন ফের একবার তা মনে করিয়ে দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি৷

    কৃষক নেতা হান্নান মোল্লার অবশ্য দাবি, সরকার যে ন্যূনতম সহায়ক মূল্য দিচ্ছে, তা স্বামীনাথন কমিশনের সুপারিশের তুলনায় অনেক কম সহায়ক মূল্য দিচ্ছে কেন্দ্র৷ ৯৪ শতাংশ কৃষকই তা পান না বলেও অভিযোগ করেছেন হান্নান মোল্লা৷ তাঁর দাবি, বর্তমানে যে হারে এমএসপি দেওয়া হচ্ছে, তাও বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন কৃষকরা৷ পাশাপাশি সব ফসলেই ন্যূনতম সহায়ক মূ্ল্য দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন তিনি৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: