‘রামভক্তি হোক বা রহিমভক্তি, এখন সময় ভারতভক্তির’, ঐতিহাসিক অযোধ্যা রায়ের পর দেশবাসীর কাছে শান্তিরক্ষার আর্জি মোদির

রায়কে হার-জিত হিসেবে দেখা উচিত নয়, বলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি

রায়কে হার-জিত হিসেবে দেখা উচিত নয়, বলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: অযোধ্যার বিতর্কিক জমি মামলার চুড়ান্ত রায় ঘোষণার পর ফের আরও একবার দেশবাসীর কাছে শান্তি রক্ষার আর্জি জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৷ তিনি ট্যুইট করে বলেন, ‘রায়কে হার-জিত হিসেবে দেখা উচিত নয় ৷ রাম থাকুক বা রহিম ভক্তি থাকুক ৷ এখন ভারত ভক্তিকেই গুরুত্ব দেওয়া উচিত ৷ শান্তি ও সহাবস্থান বজায় থাকুক ৷ ’

    ৭০ বছরের টানাপোড়েন ও ২৬ বছরের আইনি যুদ্ধ শেষে সুপ্রিম কোর্টের ঐতিহাসিক রায় ৷ পাঁচ বিচারপতির সর্বসম্মতিতে অযোধ্যা মামলার রায় ঘোষণা ৷ অযোধ্যার বিতর্কিত জমি রামলালার দাবিতে আইনি সিলমোহর সুপ্রিম কোর্টের ৷ অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে তৈরি হবে রামমন্দির। অযোধ্যা মামলায় ঐতিহাসিক রায়ে নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের।  বিতর্কিত জায়গার বাইরে মসজিদ তৈরির জন্য ৫ একর জমি পাবে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড। রায় কার্যকরের জন্য কেন্দ্রকে ট্রাস্ট গঠনের নির্দেশ শীর্ষ আদালতের।

    এই রায়ের পরই প্রধানমন্ত্রী মোদি ট্যুইটে বলেন, ‘সুপ্রিম কোর্টের এই রায় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ৷ এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আরও একবার প্রমাণিত হল, বিবাদ মেটাতে আইনি প্রক্রিয়ায় আস্থা জরুরি ৷ মামলায় প্রতিটি পক্ষকে নিজেদের কথা ও দলিল পেশ করার যথেষ্ট সময় দিয়েছে আদালত ৷ সব শুনে শীর্ষ আদালত সৌহার্দ্যপূর্ণভাবে বহু বছরের পুরনো ঝগড়ার সমাধান করল ৷’ এখানেই শেষ নয় তিনি আরও বলেছেন, ‘আদালতের এই রায় জনসাধারণের বিশ্বাসকে আরও মজবুত করবে ৷ এখন আমাদের দেশের ১০০০ বছরেরও পুরনো সৌহার্দ্য ও ঐক্যকে মনে রেখে ১৩০ কোটি ভারতীয়র শান্তি ও সংযমের পরিচয় দেওয়া উচিত ৷ ’
    First published: