#Article 370 : এবার লোকসভাতেও পাশ জম্মু-কাশ্মীর পুনর্গঠন বিল, রাজ্য থেকে কাশ্মীর এখন কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল

বিলের পক্ষে ভোট পড়েছে ৩৬৬টি, বিপক্ষে ৬৬টি ভোট ৷

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 06, 2019 08:59 PM IST
#Article 370 : এবার লোকসভাতেও পাশ জম্মু-কাশ্মীর পুনর্গঠন বিল, রাজ্য থেকে কাশ্মীর এখন কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল
representative image
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 06, 2019 08:59 PM IST

#নয়াদিল্লি: রাজ্যসভার পর লোকসভাতেও পাশ হয়ে গেল জম্মু-কাশ্মীর পুনর্গঠন বিল ৷ সংসদের সিলমোহর। সোমবার রাজ্যসভার পর মঙ্গলবার লোকসভাতেও পাস হয়ে গেল ৩৭০ ধারা বাতিলের প্রস্তাব এবং জম্মু-কাশ্মীর পুনর্গঠন বিল। এই বিলের পক্ষে ভোট দিয়েছেন ৩৬৬ জন সাংসদ। বিপক্ষে মাত্র ৬৬।

এরপরই বিজেপির বিভিন্ন দফতরে উ‍ৎসবের মেজাজ। এই পুনর্গঠন বিল অনুযায়ী, রাজ্যের তকমা খোয়াচ্ছে জম্মু-কাশ্মীর। জম্মু-কাশ্মীর ভেঙে তৈরি হবে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল। জম্মু-কাশ্মীর এবং লাদাখ। দিল্লি মডেলে, কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল জম্মু-কাশ্মীরে থাকবে বিধানসভা। লাদাখে বিধানসভা থাকবে না। ৩৭০ ধারা বাতিল হওয়ায় বিশেষ মর্যাদাও খোয়াল কাশ্মীর।

রাজ্যসভায় পাস হয়ে যাওয়ার পর আজ লোকসভায় বিল পেশ হয়। ভোটাভুটির আগে চলে তীব্র বিতর্ক ৷ আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী। অধিবেশন থেকে ওয়াকআউট করেন তৃণমূল সাংসদরা।

সোমবার বিজেপি সরকারের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তে বদলে গেল জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যের মর্যাদা ৷ ৬৯ বছর পর রদ ৩৭০ ধারা এবং ৩৫এ ৷ বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা হারাল জম্মু ও কাশ্মীর ৷ একইসঙ্গে কাশ্মীর থেকে ভেঙে আলাদা করে দেওয়া হল লাদাখকে। দুটি আলাদা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হচ্ছে জম্মু- কাশ্মীর ও লাদাখ। জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখ - দু’টি জায়গাতেই থাকবেন লেফটেন্যান্ট গভর্নর৷

কেন্দ্রের জম্মু-কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার নিয়ে বিভক্ত বিরোধীপক্ষ। খোদ কংগ্রেসই ৩৭০ নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত । আজ লোকসভায় যেমন কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরি ৷ এবার কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন করে ট্যুইট করেছেন কংগ্রেসের প্রথম সারির নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। একদিকে বেঁফাস অধীর। অন্যদিকে ড্যামেজ কন্ট্রোলে রাহুলের টুইট। তাতেও ৩৭০ ধারার বিরোধিতায় স্পষ্ট নেতাহীন কংগ্রেস। ইতিমধ্যে মোদি সরকারকে সমর্থনের তালিকা বেশ লম্বা হয়েছে। হতাশ গুলাম নবি আজাদের মন্তব্য, যাঁরা ইতিহাস জানেন না, তাঁদের আর কী বলা যাবে।

First published: 07:43:35 PM Aug 06, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर