• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • পাশ্চাত্য নাম অতীত, সেনাবাহিনীর কুকুরদের নামকরণ অনুষ্ঠানে নতুন সিদ্ধান্ত

পাশ্চাত্য নাম অতীত, সেনাবাহিনীর কুকুরদের নামকরণ অনুষ্ঠানে নতুন সিদ্ধান্ত

photo source/swarjya

photo source/swarjya

আইটিবিপি জওয়ানদের বিশেষ বিজ্ঞানসম্মতভাবে প্রজনন করা এক ধরণের কুকুর। সম্প্রতি ১৭ টি কুকুর ছানা জন্ম নিয়েছে চণ্ডীগড়ে আইটিবিপি - র ক্যাম্পে।

  • Share this:

    #শ্রীনগর: ওরা কঠিন পরিস্থিতিতে হাল ছাড়ে না। পাহাড়ের উচ্চতা হোক বা জঙ্গলের গভীরে,বরফে মোড়া উপত্যকা থেকে মাওবাদী অঞ্চল, সেনাবাহিনীর কঠিন কাজ সহজ করার ক্ষেত্রে ওদের জুড়ি নেই। পোশাকি নাম কে ৯। আইটিবিপি জওয়ানদের বিশেষ বিজ্ঞানসম্মতভাবে প্রজনন করা এক ধরণের কুকুর। সম্প্রতি ১৭ টি কুকুর ছানা জন্ম নিয়েছে চণ্ডীগড়ে আইটিবিপি - র ক্যাম্পে। একদিন আগেই হয়ে গেল এদের নামকরণ অনুষ্ঠান। এতদিন ভারতীয় সামরিক বাহিনীর বিভিন্ন রেজিমেন্ট কুকুরদের নাম পাশ্চাত্য নামেই রাখা হত। সেটাই ছিল ট্র্যাডিশন।

    কিন্তু নতুন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে এই মুহূর্তে। আর পাশ্চাত্য নাম নয়। যেসব এলাকায় সেনারা টহল দেন, বা যেসব পোস্ট পাহারা দেন, বা যেসব জায়গায় প্রাণ দিয়েছেন বীর যোদ্ধারা,সেসব জায়গার নামেই নাম রাখা হবে কুকুরদের। গলওয়ান, চিপচাপ, সাসোমা,দৌলত,ট্যাংগো, ইউলা- ইত্যাদি নাম রাখা হয়েছে। যে তিন কুকুর এই সন্তানদের জন্ম দিয়েছে, তারাও অতীতে বহু গোপন অপারেশনে সেনাবাহিনীর সাহায্য করেছে। আইটিবিপি ছাড়াও এই প্রজাতির কুকুর ব্যবহার করে কেন্দ্রীয় পুলিশ বাহিনী এবং স্পেশাল অপারেশন গ্রুপ।

    তীক্ষ্ণ বুদ্ধি, অসাধারণ ঘ্রাণশক্তি ছাড়াও যে কোনও জায়গায় সমানভাবে কাজ করতে দক্ষ এরা। রিট্রিভার বা লব্রাডোর প্রজাতি এতদিন ব্যবহার করা হলেও বিজ্ঞানসম্মতভাবে প্রজনন করা এই প্রজাতির কার্যকারিতা তুলনায় বেশি। তাই এদের চাহিদাও বেড়েছে। তবে হঠাৎ করে পাশ্চাত্য নাম না রাখার সিদ্ধান্ত কেন? অনেকেই বলছেন ভারতীয় জওয়ানদের উৎসাহ দিতে এবং মোটিভেট করতে তাঁদের প্রিয় কুকুরদের নাম জায়গার নামে রাখা হলে সেটা বেশি ভালো। আপাতত ভারত - চিন সীমান্তের বিরাট জায়গা জুড়ে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে রাখা আছে এই প্রজাতির বহু কুকুর।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: