• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪৩ হাজার ছুঁইছুঁই, গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৮৩ জনের

দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪৩ হাজার ছুঁইছুঁই, গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৮৩ জনের

এদিকে মালদহে করোনা সন্দেহে বামনগোলার এক রোগীকে ভর্তি না করে বাড়ি ফিরে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে মালদা মেডিকেল কলেজের বিরুদ্ধে। অসুস্থ ওই ব্যক্তির দাদা দিন কয়েক আগে করোনাই মারা যান। এরপর শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় তাঁকে বামনগোলা হাসপাতাল থেকে মালদা মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়। কিন্তু, অ্যাম্বুলেন্সে চেপে এসে মালদহ মেডিকেল কলেজের সামনে দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থেকেও ওই রোগী ভর্তি হতে পারেনি বলে অভিযোগ। শেষে পরিবারের লোকজন তাঁকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যায়। (তথ্য- সেবক দেবশর্মা)

এদিকে মালদহে করোনা সন্দেহে বামনগোলার এক রোগীকে ভর্তি না করে বাড়ি ফিরে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে মালদা মেডিকেল কলেজের বিরুদ্ধে। অসুস্থ ওই ব্যক্তির দাদা দিন কয়েক আগে করোনাই মারা যান। এরপর শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় তাঁকে বামনগোলা হাসপাতাল থেকে মালদা মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়। কিন্তু, অ্যাম্বুলেন্সে চেপে এসে মালদহ মেডিকেল কলেজের সামনে দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থেকেও ওই রোগী ভর্তি হতে পারেনি বলে অভিযোগ। শেষে পরিবারের লোকজন তাঁকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যায়। (তথ্য- সেবক দেবশর্মা)

একদিনে ২৫৭৩ জন! ভারতে করোনা-আক্রান্তে নয়া রেকর্ড

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: সময়ের সঙ্গে সঙ্গে লাফিয়ে বাড়ছে ভারতের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। কোনও ভাবেই রাশ টানা যাচ্ছে না আক্রান্তের সংখ্যায়। আর সেই সঙ্গে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ভয় জাঁকিয়ে বসছে ভারতের বুকে। দেশে কোভিড-১৯ আক্রান্তের সংখ্যা ৪৩ হাজার ছুঁইছুঁই। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের হিসেবে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ২৫৭৩। যা এখনও পর্যন্ত এক দিনে সর্বোচ্চ। এই বৃদ্ধির জেরে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের মোট সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৪২ হাজার ৮৩৬। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৮৩ জনের। এর জেরে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৩৮৯। এখনও পর্যন্ত করোনায় সুস্থ হয়েছেন ১১ হাজার ৭৬২।

    দেশের মধ্যে সব থেকে উদ্বেগজনক জায়গা হচ্ছে মহারাষ্ট্র, গুজরাত ও দিল্লি ৷ সরকারি হিসেবে মহারাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা ১২ হাজার ৯৭৪ আর মৃত্যু হয়েছে ৫৪৮ জনের৷ মহারাষ্ট্রের পরেই রয়েছে গুজরাত। সেখানে মোট আক্রান্ত ৫৪২৮ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ২৯০ জনের। তৃতীয় স্থানে রয়েছে দিল্লি, সেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪৫৪৯, আর মৃত্যু হয়েছে ৬৮ জনের। মধ্যপ্রদেশ, অন্ধ্রপ্রদেশ, তামিলনাড়ুকে নিয়েও চিন্তায় আছেন স্বাস্থ্য কর্তারা।

    মধ্যপ্রদেশে সংক্রমিত হয়েছেন ২,৯৪২ জন। সেখানে মৃত্যু হয়েছে ১৬৫ জনের। রাজস্থানে সংক্রমিত হয়েছেন ২৮৮৫ জন। মৃত্যু হয়েছে ৭১ জনের। তামিলনাড়ুতে আক্রান্তের সংখ্যা ৩০২৩, মৃত্যু হয়েছে ৩০ জনের। উত্তরপ্রদেশে ২৭৪২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ৪৫ জনের। পশ্চিমবঙ্গে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১২৫৯। মৃতের সংখ্যা ৬১।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: