Home /News /national /
Netaji Statue in India Gate: ইন্ডিয়া গেটে নেতাজির বিশালাকার মূর্তি তৈরি করছেন কোন শিল্পী?

Netaji Statue in India Gate: ইন্ডিয়া গেটে নেতাজির বিশালাকার মূর্তি তৈরি করছেন কোন শিল্পী?

Netaji Subhash Chandra Bose Statue: নেতাজির মূর্তি খোদাইয়ের জন্য কালো জেড গ্রানাইট পাথর আনা হবে তেলঙ্গানা থেকে। সুভাষচন্দ্রের মূর্তিটির নকশা তৈরি করেছে কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রক।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: ইন্ডিয়া গেটে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর প্রস্তাবিত বিশাল মূর্তি স্থাপনের আগে নেতাজির (Netaji Subhas Chandra Bose) হলোগ্রাম মূর্তি নিয়ে শোরগোল সারা দেশেই। শুক্রবার, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Prime Minister Narendra Modi) ঘোষণা করেছেন, এই বিপ্লবীর কাছে ভারতের “ঋণস্বীকারের প্রতীক” হিসাবে ইন্ডিয়া গেটে (Netaji Statue in India Gate) দেশের স্বাধীনতার মুক্তিযোদ্ধার একটি বিশাল মূর্তি স্থাপন করা হবে। এই বিশালাকার মূর্তি নির্মাণের নেপথ্যের শিল্পী হলেন ভাস্কর অদ্বৈত গদানায়ক। ন্যাশনাল মডার্ন আর্ট গ্যালারির পরিচালক (National Modern Art Gallery) অদ্বৈত গদানয়ক (Adwaita Gadanayak) ও তাঁর দল মিলে গড়ে তুলছেন গ্রানাইটের বিশাল অবয়ব।

    বিপ্লবী আন্দোলন এবং দেশের স্বাধীনতার নেপথ্যের এই নায়কের মূর্তি গড়ার সুযোগে আপ্লুত অদ্বৈত গদনায়ক। তিনি জানিয়েছেন, মূর্তিটি স্থাপিত হলে তা সরাসরি রাইসিনা হিলস থেকে সহজেই দেখা যাবে। “আমি অত্যন্ত আনন্দিত। একজন ভাস্কর হিসেবে এ আমার কাছে ভীষণই সম্মানের বিষয় যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আমাকে এই দায়িত্ব দিতে বেছে নিয়েছেন।”

    নেতাজির মূর্তি খোদাইয়ের জন্য কালো জেড গ্রানাইট পাথর আনা হবে তেলেঙ্গানা থেকে। সুভাষচন্দ্রের মূর্তিটির নকশা তৈরি করেছে কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রক।

    আরও পড়ুন- সনিয়াকে ফোন করেছিলেন মমতা, বলেছিলেন জোটের কথা, মেলেনি সাড়া, দাবি তৃণমূলের

    সরকারের এক প্রতিবেদন অনুসারে, গ্রানাইটের তৈরি এই মূর্তিটি একটি ছাউনির নীচে স্থাপন করা হবে (Netaji Statue in India Gate)। উল্লেখযোগ্য, ঠিক একই জায়গায় রাজা পঞ্চম জর্জের একটি মূর্তি স্থাপিত ছিল। ১৯৬৮ সালে ওই জায়গা থেকে মূর্তিটি সরিয়ে ফেলা হয়।

    পাথরের মূর্তি নির্মাণের কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত ওই একই স্থানে সুভাষ চন্দ্র বসুর একটি হলোগ্রাম মূর্তি থাকবে। ২৩ জানুয়ারি আজাদ হিন্দ ফৌজের প্রতিষ্ঠাতা সুভাষ চন্দ্রের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ওই হলোগ্রাম মূর্তিটি উন্মোচন করবেন। নেতাজির হলোগ্রাম মূর্তি ২৮ ফুট লম্বা ও ছয় ফুট চওড়া।

    আরও পড়ুন- "স্কুল বন্ধ রেখে বেশি বিপদ ডেকে আনছেন" সরকারকে স্কুল খোলার আর্জি জানাল UNICEF

    হলোগ্রাম মূর্তিটি একটি ৩০,০০০ লুমেন 4K প্রজেক্টর দ্বারা চালিত হবে। একটি অদৃশ্য, হাই গেইন সম্পন্ন, ৯০% স্বচ্ছ হলোগ্রাফিক স্ক্রিন এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যাতে দর্শকরা এটিকে দেখতে পাবেন না। হলোগ্রাম এফেক্টকে আরও সুন্দর করে তুলতে নেতাজির একটি ত্রিমাত্রিক ছবি এতে প্রজেক্ট করে দেখানো হবে।

    ২৩ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী মোদি এই বিশেষ অনুষ্ঠানে ২০১৯, ২০২০, ২০২১ এবং ২০২২ সালের ‘সুভাষচন্দ্র বসু আপদা প্রবন্ধন পুরস্কার’ প্রদান করবেন। অনুষ্ঠানটিতে মোট সাতটি পুরস্কার প্রদান করা হবে।

    বিভিন্ন সময়ে দুর্যোগ মোকাবিলার ক্ষেত্রে ভারতে কোনও ব্যক্তি এবং সংস্থা যারা নিঃস্বার্থভাবে মাঠে নেমে কাজ করেছেন এবং বিপদের সম্মুখীন হয়ে লড়াই জারি রেখেছেন তাদের এই অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ এই বিশেষ সম্মান প্রদান করা হবে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় জানিয়েছে, প্রতি বছর ২৩ জানুয়ারি এই সম্মান ঘোষণা করা হবে।

    কোনও সংস্থার ক্ষেত্রে নগদ ৫১ লক্ষ টাকা এবং একটি শংসাপত্র এবং কোনও ব্যক্তির ক্ষেত্রে নগদ পাঁচ লক্ষ টাকা ও একটি শংসাপত্র প্রদান করা হবে।

    Published by:Madhurima Dutta
    First published:

    Tags: Netaji Statue, Netaji Subhas Chandra Bose

    পরবর্তী খবর