কৃষি আইন সাময়িক ভাবে স্থগিত রাখতে প্রস্তুত সরকার, বললেন মোদি

কৃষক নেতারা কৃষিমন্ত্রীকে একটা ফোন কল করলেই এই আইন স্থগিত করা হবে। আলোচনার মাধ্যমেই সমাধান খুঁজে বের করা হবে বলে জানাচ্ছেন তিনি।

কৃষক নেতারা কৃষিমন্ত্রীকে একটা ফোন কল করলেই এই আইন স্থগিত করা হবে। আলোচনার মাধ্যমেই সমাধান খুঁজে বের করা হবে বলে জানাচ্ছেন তিনি।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: কৃষক আন্দোলন নিয়ে চলছে জোর তরজা। কেন্দ্রের তিন কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে বিগত দুমাস ধরে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন কৃষকরা। এই নিয়ে কেন্দ্রের সঙ্গে বেশ কয়েকবার বৈঠক করেও কোনও সমাধান সূত্র পাওয়া যায়নি। শেষ পর্যন্ত কেন্দ্রের পক্ষ থেকে এই কৃষি আইন আগামী ১৮ মাসের জন্য স্থগিত রাখার প্রস্তাব দেওয়া হয়। কিন্তু সেই প্রস্তাব মেনে নেননি কৃষকরা। শনিবার নরেন্দ্র মোদি জানান, এখনও সেই নির্দিষ্ট সময়ের জন্য এই আইন স্থগিত রাখতে কেন্দ্র প্রস্তুত। এখনও একটা ফোন কল করলেই আইন স্থগিত রাখা হবে বলে তিনি জানান।

    শনিবার সর্বদলীয় বৈঠকে এই কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি জানান এখনও কেন্দ্র সুস্থ ভাবে কৃষকদের সঙ্গে আলোচনা করতে রাজি। কৃষক নেতারা একটা ফোন কল করলেই এই আইন স্থগিত করা হবে। আলোচনার মাধ্যমেই সমাধান খুঁজে বের করা হবে বলে জানাচ্ছেন তিনি।

    কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমারকে ফোন করার কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। আগেও নরেন্দ্র সিং তোমার জানিয়েছিলেন কৃষক নেতারা তাঁকে ফোন করলেই হবে। সেই কথারই সমর্থন জানিয়েছেন মোদি। তিনি বলছেন, "নরেন্দ্র সিং তোমার যা বলেছিলেন কৃষকদের, আমিও সেটাই বলছি। একমত না হলেও কৃষকদের একটা প্রস্তাব আমরা দিয়েছি।"

    সেই প্রস্তাব নিয়ে ভেবেই ফোন করার কথা বলেছেন মোদি। প্রসঙ্গত, গত দুমাস ধরে শান্তি বজায় রেখেই চলছে কৃষক আন্দোলন। কিন্তু সাধারণতন্ত্র দিবসে এর চিত্র বদলে যায়। পুলিশ ও কৃষকদের মধ্যে অশান্তি তৈরি হয় ও রাজধানীতে হিংসা ছড়ায়।

    এর মধ্যেই রয়েছে ২০২১-২২ অর্থবর্ষের বাজেট তবে প্রতিবছর বাজেট অধিবেশনের আগে সর্বদলীয় বৈঠক হয়। কিন্তু কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন করেই বাজেট অধিবেশনের প্রথম দিনটিতে রাষ্ট্রপতির ভাষণ বয়কট করে ১৯টি রাজনৈতিক দল। শনিবার সেই দলগুলির সঙ্গেই বৈঠক করলেন মোদি। এবং কৃষকদের আইন স্থগিত রাখার আশ্বাস দিলেন।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: