• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • MODI ON AFGHANISTAN CRISIS PM SAYS MAY DOMINATE FOR SOME TIME BUT NOT ALWAYS SANJ

Modi On Afghanistan Crisis : আফগানিস্তানে তালিবান-তাণ্ডব নিয়ে নীরবতা ভাঙলেন নরেন্দ্র মোদি! দিলেন কঠোর বার্তা...

তালিবান সন্ত্রাস প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী

Modi On Afghanistan Crisis : আফগানিস্তানে তালিবানরাজ নিয়ে এদিন প্রধানমন্ত্রীর (PM Narendra Modi) বক্তব্যেই দিল্লি নিজের জায়গা স্পষ্ট করে দিয়েছে শুক্রবার।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি : তালিবান মুলুকে দখল কায়েম করার পরেই কার্যত তাণ্ডব শুরু করে দিয়েছে তালিবানরা(Taliban Terror)। মুখে শান্তির কথা বললেও কাজের ক্ষেত্রে যথেষ্ট অনমনীয়তা দেখিয়ে চলেছে তারা আফগানিস্তানের(Afghanistan Crisis) বুকে। শান্তিকামী মুখোশের আড়ালে বেরিয়ে পড়ছে নির্মম মুখ। যে তালিবান(Taliban) ২০ বছর পরও নিজের হিংস্র মোড়ককে ঝেড়ে ফেলতে পারেনি, তা নিয়ে স্পষ্ট বার্তা দিয়ে চলেছে তাদের এক একটি কাজ। এপর্যন্ত রবিবার থেকে কাবুল পতনের পর থেকেই একাধিক ক্ষেত্রে হু হু করে আফগানিস্তানে মানুষকে মারতে শুরু করেছে তারা। সেখানেই থিম থাকেনি হিংস্রতা। ভারতের দূতাবাসে ঢুকে তাণ্ডব চালায় তালিবানরা। এরপরই মুখ খুললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি(PM Narendra Modi)।

    মোদি এদিন ট্যুইটে সাফ জানিয়েছেন, 'হিংস্রতা দিয়ে স্থাপিত শাসন কখনও বেশিদিন টেকে না। সন্ত্রাস আর আতঙ্ক দিয়ে যাে জিনিসের শুরু হয়, তার স্থায়িত্ব অনেক কম।' আফগানিস্তানে তালিবানরাজ নিয়ে এদিন প্রধানমন্ত্রীর (PM Narendra Modi) এই বক্তব্যেই দিল্লি নিজের জায়গা স্পষ্ট করে দিয়েছে শুক্রবার।

    এদিকে আফগানমুলুকে ঘরে ঘের ঢুকছে তালিবান, ফিরে আসছে ২০ বছর আগের দগদগে স্মৃতি। জানা গিয়েছে, আফগানিস্তানে ঘরে ঘরে ঢুকে তালিবান সদস্যরা খোঁজ করছে কোন কোন বাড়িতে আফগান সেনার সদস্যরা আছে। তল্লাসি চালানো হচ্ছে বেলাগাম। কোন বাড়িগুলিতে ন্যাটো বাহিনি কিম্বা রাষ্ট্রসংঘের দূতরা লুকিয়ে রয়েছেন সেসব খুঁটিয়ে দেখছে তালিবানি সেনা। কার্যত গোটা দেশ নরকের আকার নিয়েছে আফগানিস্তানে।

    অন্যদিকে এদিন স্পষ্ট ভাষায় চিনের সঙ্গে হাত মেলানোর বার্তা দিয়ে দিয়েছে তালিবানরা। তারা জানিয়েছে , আফগানিস্তানের উন্নতিতে চিনকে তারা আহ্বান করতে চায়। কারণ চিনের অর্থনীতি খুবই ভালো ও বৃহৎ। তাতে আফগানিস্তানের উন্নতি হবে।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: