হোম /খবর /দেশ /
ট্রেনের শৌচাগারে পড়ে পরিযায়ী শ্রমিকের দেহ!‌ তিনদিন ধরে দেখলো না কেউ

ট্রেনের শৌচাগারে পড়ে পরিযায়ী শ্রমিকের দেহ!‌ তিনদিন ধরে দেখলো না কেউ

কিন্তু অভিযুক্ত যুবক গ্রামের পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল৷ বিয়ে করলে তার গোপন সম্পর্কের কথা জানাজানি হলে তার জেরে রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে, এই আশঙ্কা থেকেই নৃশংস ছক কষে অভিযুক্ত৷

কিন্তু অভিযুক্ত যুবক গ্রামের পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল৷ বিয়ে করলে তার গোপন সম্পর্কের কথা জানাজানি হলে তার জেরে রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে, এই আশঙ্কা থেকেই নৃশংস ছক কষে অভিযুক্ত৷

পুলিশ জানিয়েছে, মে মাসের ২৩ তারিখ নাগাদ ঝাঁসিতে পৌঁছে গিয়েছিলেন তিনি। তারপর বাড়ি ফেরার চেষ্টা করছিলেন।

  • Last Updated :
  • Share this:

#‌ঝাঁসি:‌ পরিযায়ী শ্রমিকদের ট্রেন যাত্রার বিভীষিকা যেন শেষই হতে চাইছেন না। এবার বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এক পরিযায়ী শ্রমিকের দেহ উদ্ধার করা হয় উত্তরপ্রদেশের ঝাঁসি রেলওয়ে স্টেশনে দাঁড়িয়ে থাকা একটি ট্রেনের শৌচাগার থেকে। পুলিশ মনে করছে, ওই শৌচাগারেই ওই পরিযায়ী শ্রমিক মরে পড়ে ছিলেন বেশ কয়েকদিন। রেলকর্মীরা ট্রেনটি স্যানিটাইজ করার সময় ওই ব্যক্তির দেহ খুঁজে পান।

মোহনলাল শর্মা না ওই ব্যক্তি উত্তরপ্রদেশের বস্তি জেলার বাসিন্দা। মুম্বইয়ে দিনমজুর হিসাবে কাজ করতেন তিনি। লকডাউনের ফলে আরও অসংখ্য শ্রমিকের মতো তিনিও কাজ হারিয়েছিলেন।

পুলিশ জানিয়েছে, মে মাসের ২৩ তারিখ নাগাদ ঝাঁসিতে পৌঁছে গিয়েছিলেন তিনি। তারপর বাড়ি ফেরার চেষ্টা করছিলেন। জেলা প্রশাসন তাঁকে স্টেশনে পৌঁছে দিয়েছিল গোরক্ষপুরগামী ট্রেন ধরার জন্য। সেই ট্রেনেই সম্ভবত চড়েছিলেন তিনি। সেটি রাউন্ড ট্রিপ করে ঝাঁসি ফিরলে রেলকর্মীরা দেহ উদ্ধার করেন।

মৃতের এক আত্মীয় জানিয়েছেন, পরিযায়ী শ্রমিক সঙ্গে ২৮ হাজার টাকা, একটি সাবান ও কিছু বই নিয়ে ফিরছিলেন। কারণ, মুম্বই‌য়ে তাঁর কাজ চলে গিয়েছিল।

Published by:Uddalak Bhattacharya
First published:

Tags: Migrantlabour, Migrantspecialtrain, Migrantworker