corona virus btn
corona virus btn
Loading

MHT CET 2020 exam: নিট, JEE Main-এর মতো সর্বভারতীয় পরীক্ষা যখন হচ্ছে তখন একটি রাজ্যের পরীক্ষা পিছানো সম্ভব নয়: সু্প্রিম কোর্ট

MHT CET 2020 exam: নিট, JEE Main-এর মতো সর্বভারতীয় পরীক্ষা যখন হচ্ছে তখন একটি রাজ্যের পরীক্ষা পিছানো সম্ভব নয়: সু্প্রিম কোর্ট

MHT CET অর্থাৎ মহারাষ্ট্রে ইঞ্জিনিয়ারিং প্রবেশিকা পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার আর্জি নিয়ে একটি পিটিশন সুপ্রিম কোর্টে জমা পড়ে ৷

  • Share this:

#মুম্বই: করোনা পরিস্থিতিতে মহারাষ্ট্রে ইঞ্জিনিয়ারিং প্রবেশিকা (MHT CET) পিছনোরও আর্জি খারিজ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট ৷ সোমবার এই মামলার শুনানিতে নিট, JEE Main-এর মতো সর্বভারতীয় পরীক্ষা মামলার প্রসঙ্গ টেনে শীর্ষ আদালত বলে, সর্বভারতীয় পরীক্ষা যখন নেওয়া হচ্ছে তখন কোনও একটি রাজ্যের পরীক্ষা এভাবে পিছনো সম্ভব নয় ৷

MHT CET অর্থাৎ মহারাষ্ট্রে ইঞ্জিনিয়ারিং প্রবেশিকা পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার আর্জি নিয়ে একটি পিটিশন সুপ্রিম কোর্টে জমা পড়ে ৷ এদিন সেই মামলার শুনানিতেই আদালত পরীক্ষা পিছনোর আর্জি খারিজ করে পিটিশনারকে ১৭ অগাস্ট নিট ও জি মেইন পরীক্ষার ক্ষেত্রে শীর্ষ আদালতের দেওয়া অর্ডারটি চেক করতে বলে ৷ কোর্টের তরফে বলা হয় যেখানে সর্বভারতীয় পরীক্ষাগুলি নেওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছে সেখানে একটি রাজ্যের পরীক্ষা পিছনো কিভাবে সম্ভব?

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের জেরে মেডিক্যাল ও ইঞ্জিনিয়ারিং প্রবেশিকা পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার জন্য সুপ্রিম কোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা করা হয়েছিল ৷ সেই মামলাতেই করোনা পরিস্থিতিতে জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষা (JEE) ও NEET (ন্যাশনাল এলিজিবিলিটি কাম এন্ট্রান্স টেস্ট) পিছিয়ে দেওয়ার আবেদন খারিজ করে দেয় সুপ্রিম কোর্ট৷ সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অরুণ মিশ্রের নেতৃত্বে বেঞ্চ জানায়, COVID-19 অতিমারির বিষয়টি সুপ্রিম কোর্টের বিবেচনায় রয়েছে৷ কিন্তু তা বলে জীবন তো থেমে থাকবে না ৷ ছাত্র-ছাত্রীদের একটা গোটা বছর নষ্ট হতে দেওয়া ঠিক নয়৷ এটা তাঁদের কেরিয়ারের জন্য খারাপ৷

শীর্ষ আদালতের এই রায়ের পরই পরীক্ষার আয়োজনের জন্য প্রস্তুতি শুরু করে ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি ৷ কিন্তু অন্যদিকে বিভিন্ন মহল থেকে প্রধানমন্ত্রীর কাছে পরীক্ষা পিছনোর আর্জি জমা পড়েছে ৷ রাহুল গান্ধি থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অধীর রঞ্জন চৌধুরী সবাই মোদির কাছে চিঠি পাঠিয়ে বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে পরীক্ষা স্থগিতের আর্জি জানিয়েছেন৷ রাহুল গান্ধিও প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ, "একবার ছাত্রদের মনের কথাও (স্টুডেন্টস কে মন কি বাত) শুনে নিন।"

সোমবার  মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ট্যুইট করেন, " প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে শেষ ভিডিও কনফারেন্সে ইউজিসি-র তরফে সেপ্টেম্বরের শেষ দিকে পরীক্ষা নেওয়া নিয়ে যে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছিল তা নিয়ে আমি বলেছিলাম। যে পরীক্ষা ছাত্র-ছাত্রীদের বর্তমান পরিস্থিতিতে ঝুঁকির মধ্যে ফেলতে পারে। এখন কেন্দ্রের শিক্ষামন্ত্রীর নির্দেশে NEET,JEE পরীক্ষা সেপ্টেম্বরে নেওয়া হবে। আমি আবার কেন্দ্রের কাছে আর্জি রাখবো ছাত্র-ছাত্রীদের এই পরীক্ষা নিয়ে কতটা ঝুঁকি রয়েছে তা বিশ্লেষণ করুন এবং পরীক্ষা স্থগিত রাখুন পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত। এটা আমাদের কর্তব্য ছাত্র-ছাত্রীদেরকে সুস্থ পরিবেশ দেওয়া।" শুধু ট্যুইট নয়, তিনি প্রধানমন্ত্রীকে বিষয়টি নিয়ে চিঠিও পাঠিয়েছেন ৷

Published by: Elina Datta
First published: August 24, 2020, 11:07 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर