corona virus btn
corona virus btn
Loading

এই কারণেই হার্দিক পটেলকে চড় অভিযুক্তের

এই কারণেই হার্দিক পটেলকে চড় অভিযুক্তের

কোনও রাজনৈতিক আক্রোশ নয়, সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত একটি কারণে পতিদার আন্দোলনের নেতার উপর হামলা ৷

  • Share this:

#আমেদাবাদ: নির্বাচনী সভায় কংগ্রেস নেতাকে সপাটে চড়। গুজরাতের সুরেন্দ্রনগরে জন আক্রোশ সভায় বক্তৃতা দিচ্ছিলেন হার্দিক পটেল। সে সময় এক যুবক হঠাৎই মঞ্চে উঠে এসে চড় মারেন হার্দিককে। পরে জানা যায় অভিযুক্ত যুবকের নাম তরুণ গুজ্জর ৷ কোনও রাজনৈতিক আক্রোশ নয়, সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত একটি কারণে পতিদার আন্দোলনের নেতার উপর হামলা ৷

হার্দিককের উপর হামলার পর অভিযুক্তকে বেধড়ক মারধর করেন কংগ্রেস কর্মীরা। তাঁকে আটক করেছে পুলিশ। গুরুতর আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন তরুণ ৷ সেখানেই তিনি জানান হার্দিককে চড় মারার আসল কারণ ৷

পাতিদার আন্দোলনের নেতার ডাকে গোটা গুজরাত একসময় বন্ধ ছিল ৷ পরিবহণ থেকে পরিষেবা সবই ছিল স্তব্ধ ৷ সে সময় গর্ভবতী ছিলেন তরুণ গুজ্জর্রের স্ত্রী ৷ গুজরাত বনধের মধ্যেই হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি ৷ সে সময় দরকার ছিল একটি জরুরি ওষুধ ৷ কিন্তু পতিদার আন্দোলনের কারণে বন্ধ ছিল গোটা গুজরাত ৷ শহর ঘুরেও একটা ওষুধের দোকান খোলা পাননি তরুণ ৷ রাস্তা বন্ধ থাকার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়াও সম্ভব হয়নি ৷ প্রচন্ড কষ্ট ভোগ করেন তরুণের স্ত্রী ৷

সেদিন প্রিয়জনকে ওভাবে কষ্ট পেতে দেখে হার্দিকের উপর যে ক্ষোভ জমা হয়েছিল তরুণের, তারই বহিপ্রকাশ এই চড় ৷ তরুণের প্রশ্ন হার্দিক কী গুজরাতের হিটলার? তার জন্য সেদিন কেন বন্ধ রাখা হয়েছিল সমস্ত ওষুধের দোকান? সমস্ত রাস্তায় কেন আটকানো হচ্ছিল যানবাহন? সেদিনের রাগেই এদিন হার্দিককে নির্বাচনী সভায় সামনে পেয়ে থাপ্পড় মারেন তরুণ ৷

First published: April 19, 2019, 5:54 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर