• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • স্ত্রী জিন্স পরে নাচতে চায়নি, যোগী রাজ্যে তিন তালাক স্বামীর, ভয়াবহ সিদ্ধান্ত ...

স্ত্রী জিন্স পরে নাচতে চায়নি, যোগী রাজ্যে তিন তালাক স্বামীর, ভয়াবহ সিদ্ধান্ত ...

প্রতীকী চিত্র।

প্রতীকী চিত্র।

স্ত্রী জিন্স পরে নাচ করতে মানা কয়ায় তাকে বিবাহ বিচ্ছেদের কবলে পড়তে হল। স্বামীর কথা না শোনায় ট্রিপল তালাকের শিকার হলেন তিনি।

  • Share this:

    #উত্তরপ্রদেশ: স্ত্রী জিন্স পরে নাচ করতে রাজি হননি। এই তাঁর 'অন্যায়' । আর সে জন্যেই তাঁকে বিবাহ বিচ্ছেদের মুখে পড়তে হল। হ্যাঁ ঠিকই পড়ছেন, মিরাটে এই ঘটনায় তাজ্জব সমাজ। স্বামীর কথা না শোনায় তিন তালাকের মুখে পড়া ওই মহিলা পরে থানার দ্বারস্থ হন।

    পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, পরে ওই ব্যক্তি শ্বশুর বাড়িতে গিয়ে ঝামেলা করেন এবং নিজের গায়ে আগুন লাগিয়ে দেন। তখনই তাঁকে পরিবারের লোকেরা হাসপাতালে নিয়ে যায়। ওই ব্যক্তি এখন সুস্থ আছেন বলে জানা গিয়েছে।

    ঘটনাটি ঘটে মঙ্গলবার রাতে লিসারি গেট পুলিশ স্টেশনের অধীনে ইজমাইল নামক এলাকায়। ওই অঞ্চলের বাসিন্দা আমিরুদ্দিন আট বছর আগে নিজের মেয়ের বিয়ে দিয়েছিলেন পিলখুয়ার বাসিন্দা আনাসের সঙ্গে। ওই ব্যক্তি দিল্লিতে চাকরি করেন।

    আনাসের স্ত্রী পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন যে তাঁর স্বামী তাকে নাচতে এবং গাইতে বাধ্য করছিলেন বার বার। তাঁকে জিন্স পরে নাচার জন্য জোর করছিলেন। তিনি রাজি না হওয়ায় আনাস দু’দিন আগে ‘তিন তালাক’ উচ্চারণ করেন। ওই মহিলা কী করবেন বুঝতে না পেরে স্থানীয় পঞ্চায়েতেও যোগাযোগ করেছিলেন, কিন্তু তাতে কোনও সমাধান পাওয়া যায়নি। যদিও এখানেই শেষ নয়, এরপর গায়ে আগুন লাগিয়েও স্ত্রীকে শিক্ষা দিতে চেয়েছিলেন আনাস।

    ওই মহিলার বাবা আমিরুদ্দিন জানিয়েছেন, আনাস মঙ্গল বার রাতে তাদের বাড়িতে যায় এবং নিজের গায়ে আগুন লাগিয়ে দেয়।

    কিছু দিন আগে নভেম্বর মাসেও ভোপালে এক মহিলা তাঁর স্বামীর বিরুদ্ধে তিন তালাক দেওয়ার তালাকের অভিযোগ এনেছিলেন। কারণ ওই মহিলার স্বামী একটি পুরুষ সন্তান চেয়েছিলেন। কিন্তু মহিলা বিয়ের আট বছরের মধ্যে তিনটি কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন। তাই তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে।

    উল্লেখ্য, ভারতে তিন তালাক নিষিদ্ধ। আইনের আওতায় এই বিষয়টিকে আনা হয়েছিল, যাতে কোনও মুসলিম পুরুষ শুধু মাত্র তালাক উচ্চারণের মাধ্যমে স্ত্রী’র সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ করতে না পারেন।

    Published by:Somosree Das
    First published: