• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • দলিত আন্দোলনের পাশে বিরোধীরা, হিংসায় মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ মমতার

দলিত আন্দোলনের পাশে বিরোধীরা, হিংসায় মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ মমতার

9 died in violence

9 died in violence

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: দলিতদের আন্দোলনের পাশে দাঁড়িয়ে মৃতদের পরিবারের প্রতি শোক জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়ে কেন্দ্রকে হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিএসপি ও কংগ্রেস। তাদের অভিযোগ, বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকার চায় না দলিতরা সামনের সারিতে আসুক। তবে বনধ ঘিরে হিংসার নিন্দাও করেছেন বিরোধীরা। সরকারের পালটা, নির্দেশ পুনর্বিবেচনায় সুপ্রিমকোর্টে রিভিউ পিটিশন দাখিল করার পরও কেন আন্দোলন-হিংসা। বিরোধীদের রাজনীতিকেই দুষেছে তারা।

    দু-হাজার উনিশের লোকসভা নির্বাচনে কৃষক-দলিত ক্ষোভ সরকারের বিরুদ্ধে বিরোধীদের অন্যতম অস্ত্র। সুপ্রিমকোর্টের নির্দেশের বিরোধিতায় দলিত ক্ষোভ রাস্তায় আছড়ে পড়তেই তা কাজে লাগাতে সময় নষ্ট করেননি বিরোধীরা। বনধ ঘিরে হিংসায় পাঁচ দলিতের মৃত্যুতে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেওয়ার পাশাপাশি আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়েছেন তারা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের টুইট,

    দলিত ভাইবোনদের মৃত্যুতে শোকার্ত এবং স্তম্ভিত। তাদের আন্দোলনের পাশে আছি। শান্তি রক্ষার আবেদন জানাচ্ছি।

    আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়েছেন বিএসপি নেত্রী মায়াবতীও। সেইসঙ্গে তাঁর হুঁশিয়ারি, সংসদে না থাকলেও বাইরে থেকে এই আন্দোলনকে এগিয়ে নিয়ে যেতে যা করার তিনি করবেন। দলিতদের দাবি আদায়ে সরকারকে মাথা নোয়াতে বাধ্য করবেন তারা।

    দলিত আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়ে টুইটে সরব হয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীও। বিজেপি-আরএসএসকে নিশানা করে রাহুলের টুইট,

    দলিতদের সমাজের নীচুতলায় রাখা বিজেপি-আরএসএসের ডিএনএ-তে। প্রতিবাদ করলেই চুপ করিয়ে দেওয়া হয়। হাজার হাজার দলিত ভাইবোন রাস্তায় নেমে অধিকার রক্ষার লড়াই করছেন। তাদের সালাম জানাই।

    দলিত আন্দোলনে পিছনে বিরোধীদের রাজনীতিই দেখছে সরকার। কেন্দ্রের দাবি, সুপ্রিমকোর্টের নির্দেশের সঙ্গে তারাও একমত নন। ইতিমধ্যেই সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার শীর্ষ আদালতে রিভিউ পিটিশন দাখিল করা হয়েছে। কিন্তু তারপরও কেন আন্দোলন-হিংসা?

    দলিত আন্দোলনে মধ্যপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থানে পরিস্থিতি সবচেয়ে অগ্নিগর্ভ। ইতিমধ্যেই সেখানে পুলিশ এবং র্যাফের টহলদারি চলছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় কেন্দ্রীয় বাহিনীও পাঠানো হয়েছে। কেন্দ্রের তরফে সমস্ত সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনগুলির কাছে শান্তি রক্ষার আবেদন জানানো হয়েছে। শান্তিরক্ষার আবেদন জানিয়েছেন বিরোধীদলের নেতানেত্রীরাও।

    First published: