দেশ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

'শ্রীরাম এ ভাবেই আমাদের আশীর্বাদ করুন,' বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলার রায়ের পরে বললেন আডবাণী

'শ্রীরাম এ ভাবেই আমাদের আশীর্বাদ করুন,' বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলার রায়ের পরে বললেন আডবাণী
লালকৃষ্ণ আডবাণী

রায় ঘোষিত হওয়ার পরেই 'জয় শ্রীরাম' স্লোগান দেন আডবাণী৷ একই সঙ্গে উত্‍সবের মুহূর্ত বলেও ব্যাখ্যা করেন আডবাণী৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: আজকের রায় তাঁর ও তাঁর দল বিজেপি-র বিশ্বাস এবং রাম মন্দির আন্দোলনের প্রতিশ্রুতির পক্ষে হয়েছে৷ বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলায় বেকসুর খালাস পেয়ে লখনউয়ে সিবিআই-এর বিশেষ আদালতের রায়কে এই ভাবেই স্বাগত জানালেন প্রবীণ বিজেপি নেতা লালকৃষ্ণ আডবাণী৷ রায় ঘোষিত হওয়ার পরেই 'জয় শ্রীরাম' স্লোগান দেন আডবাণী৷ একই সঙ্গে উত্‍সবের মুহূর্ত বলেও ব্যাখ্যা করেন আডবাণী৷

এক বিবৃতিতে আডবাণী জানালেন, 'এই রায় আমার ব্যক্তিগত বিশ্বাস, বিজেপি-র বিশ্বাস ও রাম মন্দির আন্দোলনের পক্ষে হয়েছে৷ ২০১৯ সালের নভেম্বরে সুপ্রিম কোর্টের রাম মন্দির নিয়ে ঐতিহাসিক রায়ের পরে আজকের রায়ে আমি আশীর্বাদধন্য৷ সুপ্রিম কোর্টের রায়ে আমার দীর্ঘ দিনের স্বপ্ন অযোধ্যায় বিশাল রাম মন্দির নির্মাণের পথ প্রশস্ত হয়েছে৷ ৫ অগাস্ট রাম মন্দিরের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন হতে দেখলাম৷'

তাঁর কথায়, 'আমি এই রায়কে খোলা মনে স্বাগত জানাচ্ছি৷ আমার কোটি কোটি দেশবাসীর মতো আমিও অযোধ্যায় সুন্দর রাম মন্দির দেখার অপেক্ষায় আছি৷'

লখনঔয়ে সিবিআই-এর বিশেষ আদালত বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলায় অভিযুক্ত ৩২ জনকেই বেকসুর খালাস করেছে৷ অভিযুক্তদের মধ্যে ছিলেন লালকৃষ্ণ আডবাণী, মুরলীমনোহর জোশি, উমা ভারতী ও কল্যাণ সিংয়ের মতো ব্যক্তিত্বরা৷ আদালত রায়ে জানায়, ১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর বাবরি মসজিদ ধ্বংস পূর্বপরিকল্পিত ছিল না৷

সিবিআই আদালতের বিচারক এস কে যাদব বলেন, 'কিছু সমাজবিরোধী মসজিদ ভেঙেছিল৷ অভিযুক্তরা ধ্বংস হওয়ার রোখার চেষ্টা করেছিলেন৷ আদালতে যা অডিও ভিডিও প্রমাণ সিবিআই জমা দিয়েছে, তাতে এই ৩২ জন অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কোনও চার্জ দেওয়া যাচ্ছে না উপযুক্ত প্রমাণের অভাবে৷'

গত ২৪ জুলাই এই মামলায় আডবাণীর বয়ান রেকর্ড করা হয়৷ তাঁকে ১০০টি প্রশ্ন করা হয়েছিল৷ আডবাণী ও জোশি, দুজনেই তাঁদের বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেন৷

১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ ধ্বংস করেছিল করসেবকরা। তাদের দাবি ছিল, ওই স্থানে রাম মন্দির ছিল। ঘটনায় লালকৃষ্ণ আডবাণী, মুরলীমনোহর জোশি, উমা ভারতীর মতো বিজেপি নেতা-নেত্রীর বিরুদ্ধে বাবরি মসজিদ ধ্বংসে প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ দায়ের হয়। সেই মামলার তদন্ত করে সিবিআই।

Published by: Arindam Gupta
First published: September 30, 2020, 3:01 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर