• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • LALU PRASAD YADAV SAYS HIS PARTY WILL COME BACK STRONG IN BIHAR DMG

Lalu Prasad Yadav: 'মরে গেলেও পিছিয়ে আসব না', জেল মুক্তির পর জনসমক্ষে এসেই নীতীশকে হুঁশিয়ারি লালুর

অসুস্থতার জেরে চেহারা অনেকটাই ভেঙে গিয়েছে লালু প্রসাদ যাদবের৷ Photo-ANI

আরজেডি প্রধান লালু (Lalu Prasad Yadav) এ দিন নিজের ছেলে তেজস্বীর ভূয়সী প্রশংসা করেছেন৷ ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাস থেকে জেলবন্দি ছিলেন লালু৷

  • Share this:

    #দিল্লি: মরে যাবেন, কিন্তু নীতীশ কুমারের নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকারের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে কোনও আপোস করবেন না৷ জেল মুক্তির পর প্রথমবার প্রকাশ্যে এসে এমনই দাবি করলেন আরজেডি নেতা এবং বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লালুপ্রসাদ যাদব৷ তাঁর মতে, ছেলে তেজস্বীর জন্যই এখনও প্রাণে বেঁচে আছেন তিনি৷

    নিজের দল আরজেডি-র প্রতিষ্ঠার পঁচিশ বছর পূর্তি উপলক্ষে এ দিন বক্তব্য রাখেন লালুপ্রসাদ৷ পশুখাদ্য কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত লালুপ্রসাদ প্রায় তিন বছর জেলে থাকার পর বেশ কিছুদিন আগে জামিনে মুক্তি পান৷ তার পর এই প্রথম জনসমক্ষে এলেন তিনি৷ জেলে থাকাকালীনই গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়া লালুপ্রসাদ যাদবের চেহারাও অনেক শীর্ণ হয়ে গিয়েছে৷ মাঝেমধ্যে কথাও জড়িয়ে যাচ্ছিল তাঁর৷

    আরজেডি প্রধান লালু এ দিন নিজের ছেলে তেজস্বীর ভূয়সী প্রশংসা করেছেন৷ লালুর কথায়, 'সত্যি কথা বলতে ও যে এত ভাল নেতৃত্ব দেবে, তা আমি আশা করিনি৷ দলের ব্যাটন ওঁর নিরাপদ হাতে রয়েছে৷ আরজেডি-র ভবিষ্যৎ উজ্জ্ূল৷ ' লালুর দাবি, স্ত্রী রাবড়ি দেবী এবং ছেলে তেজস্বী না থাকলে জেলে থাকতে থাকতে হয়তো মৃত্যু হত তাঁর৷ প্রত্যয়ী গলায় লালু দাবি করেছেন, খুব শিগগিরই আরও জোরালো ভাবে ফিরে আসবে আরজেডি৷ লালুর হুঁশিয়ারি, 'মরে গেলেও আমরা পিছিয়ে আসব না৷'

    ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাস থেকে জেলবন্দি ছিলেন লালু৷ যদিও হাজতবাসের বেশিরভাগ সময়টাই রাঁচির রিমস হাসপাতালে কাটিয়েছেন তিনি৷ জানুয়ারি মাসে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে চিকিৎসার জন্য দিল্লিতে নিয়ে যাওয়া হয়৷ আপাতত দিল্লিতে মেয়ে মিসা ভারতীর বাড়িতেই রয়েছেন লালুপ্রসাদ৷

    নিজের বক্তব্যে এ দিনে কেন্দ্রের মোদি সরকার এবং বিহারের নীতীশ সরকারের তীব্র আক্রমণ করেছেন লালুপ্রসাদ৷ তিনি বলেন, 'জিএসটি, নোট বাতিলের পর করোনার ধাক্কায় দেশে অর্থনৈতিক সঙ্কট তৈরি হয়েছে৷ এবার দেশের সাম্প্রদায়িক একতাকে নষ্ট করার চেষ্টা চলছে৷ অযোধ্যার পর এবার কিছু মানুষ মথুরা নিয়ে সরব হয়েছেন৷ একই সঙ্গে নীতীশ সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতি এবং করোনা অতিমারি সামাল দেওয়ার ক্ষেত্রে ব্যর্থতার অভিযোগ তুলেছেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী৷ বিহারে রোজ খুনের ঘটনা ঘটছে বলে অভিযোগ করে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি৷

    তিনি নিজে এবং তাঁর স্ত্রী রাবড়ি দেবী মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন বিহারে জঙ্গলরাজ চলত বলে নীতীশ কুমার সহ যাঁরা সমালোচনা করেন, তাঁদেরকেও জবাব দিয়েছেন আরজেডি প্রধান৷ লালুর দাবি, তাঁদের আমলে গরিবরা নিজেদের প্রাপ্য অধিকার পেয়েছিল বলেই তাঁর সমালোচকদের এত রাগ৷

    দলের কর্মী, সমর্থকদের আশ্বস্ত করে লালুর দাবি, সুস্থ হয়ে উঠে খুব শিগগিরই বিহারে যাবেন তিনি৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: