কুমারস্বামী ‘কিংবদন্তি অভিনেতা’, কটাক্ষ বিজেপির

News 18 Network

কংগ্রেসের সঙ্গে হাত মিলিয়ে একেবারেই খুশি নন কুমারস্বামী ৷ জোট সরকারের মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব সামলানো বিষপান করার মতই ৷ দলের সভামঞ্চে এমন একটি মন্তব্য করেই কান্নায় ভেঙে পড়েন কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামী ৷

  • Share this:

    #বেঙ্গালুরু: কংগ্রেসের সঙ্গে হাত মিলিয়ে একেবারেই খুশি নন কুমারস্বামী ৷ জোট সরকারের মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব সামলানো বিষপান করার মতই ৷ দলের সভামঞ্চে এমন একটি মন্তব্য করেই কান্নায় ভেঙে পড়েন কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামী ৷ এহেন মন্তব্যের পরই তোলপাড় হয়েছে জাতীয় রাজনীতি ৷ কর্ণাটকে কি তবে কর্ণাটক-জেডিএস জোটের আয়ু বেশিদিন নেই ? কুমারস্বামীর মন্তব্যের পর এমন একটি প্রশ্ন উঠছেই ৷ যদিও কুমারস্বামীর এহেন আবেগপ্রবণ মন্তব্যকে স্রেফ ‘নাটক’ বলে তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিল বিজেপি ৷ বিজেপির দাবি, কুমারস্বামী এহেন নাটক করে ‘সাধারণ মানুষকে বোকা’ বানানোর চেষ্টা করছে ৷

    কুমারস্বামীর মন্তব্যের পরই টুইট করে বিজেপি ৷ টুইটে বিজেপির মন্তব্য, কুমারস্বামী একজন ‘কিংবদন্তি অভিনেতা’ আর তিনি এই নাটক করেই ‘সাধারণ মানুষকে বোকা বানাচ্ছে ৷’ তাকে এই নাটকের জন্য একটি সেরা অভিনেতার শিরোপা দেওয়া হোক ৷ বিজেপির দাবি, রাজ্যের মানুষকে নিজেদের কব্জায় রাখতেই এমন একটি ‘নাটক’ করলেন কুমারস্বামী ৷

    একইসঙ্গে কুমারস্বামীর গোটা বক্তব্যটি ভিডিও ক্লিপের মাধ্যমে টুইট করে বিজেপি ৷ সেই ভিডিও-র ক্যাপশনে বিজেপি জানায়,

    আমাদের দেশে বিখ্যাত বেশ কিছু অভিনেতা রয়েছে ৷ যারা তাদের অসাধারণ অভিনয় দক্ষতার মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে মোহিত করে রাখে ৷ এমনই আরও এক অভিনেতার সঙ্গে আমাদের পরিচয় হল, যিনি হলেন কুমারস্বামী ৷

    কুমারস্বামীর এই মন্তব্যের পরই কংগ্রেস-জেডিএস জোটের ভাঙনের জল্পনাও জোরাল হতে শুরু করে ৷ শেষমেষ উপায় না পেয়ে ময়দানে নামে জেডিএস এবং কংগ্রেসের নেতারা ৷ জেডিএস দলের মহাসচিব এবং মুখপাত্র দানিশ আলির মন্তব্য,

    কংগ্রেস-জেডিএস সম্পর্কে কোনও ভাঙন ধরেনি ৷ আবেগপ্রবণ হয়ে এমন বলেন তিনি ৷ এর কোনও অন্তর্নিহিত মানে নেই ৷ একইসঙ্গে তিনি বলেন, কর্ণাটকে কংগ্রেস -জেডিএস জোটসরকার পাঁচ বছর কর্ণাটকের দায়িত্বেই থাকবে ৷ এনিয়ে কোনও সন্দেহ নেই ৷ সংবাদমাধ্যম অযথা জল্পনা বাড়াচ্ছে ৷

    তবে, কুমারস্বামীর এহেন মন্তব্যের পর কংগ্রেস-জেডিএস জোটের অন্দরে যে ক্ষোভের জন্ম নিয়েছে সেই বিষয়টিও স্পষ্ট ৷ কারণ কুমারস্বামীর মন্তব্যের বিরোধিতা করেন কর্ণাটকের উপমুখ্যমন্ত্রী এবং কংগ্রেস নেতা জি পরমেশ্বরা ৷ তিনি সাংবাদিকদের উদ্দেশে বলেন, ‘জোট সরকারের বিষপান করছেন কুমারস্বামী ! এমন একটি কথা কীভাবে বলতে পারেন তিনি ? রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর উচিত সবসময় খুশি থাকার ৷ তাহলেই তো সাধারণ মানুষ খুশিতে থাকবে ৷’

    আরও পড়ুন: মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব থেকে সরে যেতে চাই! কংগ্রেস-জেডিএস জোট সরকার নিয়ে বিস্ফোরক কুমারস্বামী

    গতকাল দলের একটি বিশেষ অনুষ্ঠানে বক্তৃতা রাখতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন কুমারস্বামী ৷ তিনি বলেন,

    রাজ্যবাসী আমাকে ও আমার দলকে প্রত্যাখ্যান করেছেন। আমি সম্পূর্ণ সংখ্যাগরিষ্ঠতা চেয়েছিলাম। কর্ণাটকের সাড়ে ছ’কোটি মানুষ তাঁকে আশীর্বাদ করেননি। ক্ষমতায় কংগ্রেসের দয়ায় আছি। বিশ্বনাথের মত এই জোট সরকারের বিষ গিলতে হচ্ছে আমাকে

    এমন মন্তব্য করেই কান্নায় ভেঙে পড়েন কুমারস্বামী ৷ আর তারপরেই দর্শকাসন আসন থেকে ভেসে আসে একটিই শব্দ, ‘আমরা রয়েছি আপনার সঙ্গে ৷’ তবে, বিজেপির দাবিই কি সত্যিই ? রাজ্যের মানুষকে নিজের পাশে রাখতেই কি নয়া কৌশল নিলেন কুমারস্বামী ? গোটা ঘটনাটির পর এমন বেশ কিছু প্রশ্ন কিন্তু উঠছেই ৷

    First published: