corona virus btn
corona virus btn
Loading

উন্নাও ধর্ষণকাণ্ডে আজ সাজা ঘোষণা, দোষী সাব্যস্ত বহিষ্কৃত বিজেপি নেতা কুলদীপ সেঙ্গার

উন্নাও ধর্ষণকাণ্ডে আজ সাজা ঘোষণা, দোষী সাব্যস্ত বহিষ্কৃত বিজেপি নেতা কুলদীপ সেঙ্গার
উন্নাওয়ে নাবালিকাকে ধর্ষণে দোষী কুলদীপ সেঙ্গার

ধর্ষণ, ভয় দেখানো-সহ শিশুদের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতন বিরোধী পকসো আইনের একাধিক ধারায় বহিষ্কৃত বিজেপি নেতাকে সোমবার দোষী সাব্যস্ত করে দিল্লির তিসহাজারি আদালত

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: উন্নাও ধর্ষণকাণ্ডে আজ, মঙ্গলবার সাজা ঘোষণা। দোষী সাবস্ত বহিষ্কৃত বিজেপি নেতার সাজা ঘোষমা দিল্লির তিস হাজারি আদালতে। উন্নাও ধর্ষণ মামলায় দোষী সাব্যস্ত বহিষ্কৃত বিজেপি নেতা কুলদীপ সেঙ্গার। ধর্ষণ, ভয় দেখানো-সহ শিশুদের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতন বিরোধী পকসো আইনের একাধিক ধারায় বহিষ্কৃত বিজেপি নেতাকে সোমবার দোষী সাব্যস্ত করে দিল্লির তিসহাজারি আদালত। আরেক অভিযুক্ত শশী সিংকে বেকসুর খালাসের নির্দেশ দেন বিচারক। ২০১৭ সালের জুূনে উত্তরপ্রদেশের উন্নাওয়ে ১৭ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে এই বিজেপি থেকে বহিষ্কৃত কুলদীপ সেঙ্গারের বিরুদ্ধে। ২০১৮ সালের এপ্রিলে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বাড়ির সামনে গায়ে আগুন দেওয়ার চেষ্টা করেন নির্যাতিতা। এ নিয়ে দেশ জুড়ে সোরগোল পড়ে যায়। অস্বস্তিতে পড়ে যোগী সরকার।

চাপে পড়ে সিবিআইয়ের হাতে তদন্তভার দেন যোগী আদিত্যনাথ। ২০১৮ সালের এপ্রিলে গ্রেফতার করা হয় সেঙ্গারকে। বন্দি থাকাকালীনই কুলদীপ সেঙ্গারের বিরুদ্ধে বারবার প্রভাব খাটিয়ে নির্যাতিতার পরিবারের উপর অত্যাচার চালানোর অভিযোগ ওঠে। ২০১৮ সালের ৩ এপ্রিল অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র রাখার অভিযোগ তুলে অস্ত্র আইনে নির্যাতিতার বাবার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়। তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ৬ দিনের মাথায় ৯ এপ্রিল পুলিশি হেফাজতে নির্যাতিতার বাবার মৃত্যু হয়। এরপর ২০১৯ এর জুলাইয়ে রায়বরেলি যাওয়ার পথে ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় নির্যাতিতার গাড়ির। মারা যান তাঁর দুই আত্মীয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভরতি করা হয় নির্যাতিতা ও তাঁর আইনজীবীকে। বন্দি বিজেপির কুলদীপ সেঙ্গার তাঁদের ভয় দেখাচ্ছেন বলে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় নির্যাতিতার পরিবার। এই সংক্রান্ত ৫টি মামলা দিল্লির আদালতে স্থানান্তরিত করার নির্দেশ দেয় শীর্ষ আদালত। সেই মামলাতেই আজ, মঙ্গলবার সাজা ঘোষণা তিস হাজারি আদালতে।

First published: December 17, 2019, 11:26 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर