অন্য ধর্মের বিয়েতে বাধা নেই! মৌলিক অধিকার! লাভ-জিহাদ রুখতে কর্ণাটক হাইকোর্টের রায় !

জানানো হয়েছে এই বিষয়ে খুব তাড়াতাড়ি আইনও করা হবে।

জানানো হয়েছে এই বিষয়ে খুব তাড়াতাড়ি আইনও করা হবে।

  • Share this:

    #কর্ণাটক: 'লাভ-জিহাদ' এই শব্দটা উৎপত্তি কোথা থেকে হয়েছে? প্রশ্ন করলেই সকলের মুখ হা হয়ে যাবে ! আমতা আমতা করে হয়তো বলবেন ওই হিন্দু মুসলিম বিয়ে, প্রেম এসব থেকেই তো এসেছে। একদম ঠিক এই শব্দটা তৈরি করে মানুষ অহেতুক বিবাদ শুরু করেছেন। ভালোবাসার কি কোনও জাত হয়? হয় না। কিন্তু আজও আমরা অন্য ধর্মের মানুষের সঙ্গে প্রেম বা বিয়ে দেখলেই ক্ষেপে উঠি। প্রাণে মেরে ফেল ধরণের রব ওঠে। সামান্য তানিস্কের বিজ্ঞাপনের কথাই ধরে নিন না। কি দেখানো হয়েছিল এক হিন্দু মেয়ের মুসলিম পরিবারে বিয়ে হয়েছে। এই নিয়ে প্রতিবাদ অনেকে বলেছেন কেন হিন্দি মেয়ের মুসলিম পরিবারে বিয়ে হবে? উল্টোটা কেন দেখানো হল না। বাধ্য হয়ে বিজ্ঞাপনটি সরিয়ে নিতে হয় গয়না কোম্পানিকে। আসল কথা ওই বিয়েটা নিয়ে আমরা লড়াই করাতমই, সে যে পরিবারেই বিয়ে হোক না কেন! এখন বোধহয় সময় এসেছে নিজকে বদলানোর। নয়তো নতুন প্রজন্ম এই ভাবনাকেই একদিন ধিক্কার জানাবে।

    আর এই কথা মাথায় রেখেই কর্ণাটক সরকার এক নতুন রায়দান করেছে।কর্ণাটক হাইকোর্ট জানিয়েছে, নিজের পছন্দের মানুষকে বিয়ে করে সকলের মৌলিক অধিকার। এটা সংবিধানেই আছে। কিন্তু এই ধরণের রায় দেওয়ার কারণ কি? সম্প্রতি কর্ণাটক হাইকোর্টে একটি কেস ওঠে। সেখানে মুসলিম পরিবারের ছেলেকে বিয়ে ভালোবেসে বিয়ে করতে চায় এক হিন্দু মেয়ে। তাঁরা এক সঙ্গেই কাজ করেন। এই বিয়েতে খান পরিবারের সকলে রাজি থাকলেও হিন্দু পরিবার আপত্তি জানায়। এবং মেয়েটির ওপর অত্যাচার শুরু করে। তখন একটি এনজিও মেয়েটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। এই কেসের বিচার সভাতেই এই রায় জানায় কর্ণাটক হাইকোর্ট। এবং এও জানানো হয়েছে এই বিষয়ে খুব তাড়াতাড়ি আইনও করা হবে। 'লাভ-জিহাদ'কে মাটিতে মিশিয়ে দিতেই এই প্রয়াস।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: