• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • INDIA CONSIDERS EASING RULES TO ATTRACT FDI IN CONSTRUCTION SECTOR AM

Budget 2021: অর্থনীতি চাঙ্গা করতে নির্মাণক্ষেত্রে বিদেশি বিনিয়োগের নিয়ম শিথিল করতে পারে কেন্দ্র!

করোনার জেরে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দেশের অর্থনীতি। এই ক্ষেত্রকে চাঙ্গা করতে তাই একাধিক পদক্ষেপ করছে সরকার।

করোনার জেরে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দেশের অর্থনীতি। এই ক্ষেত্রকে চাঙ্গা করতে তাই একাধিক পদক্ষেপ করছে সরকার।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: করোনার জেরে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দেশের অর্থনীতি। এই ক্ষেত্রকে চাঙ্গা করতে তাই একাধিক পদক্ষেপ করছে সরকার। আসন্ন বাজেটে পরিবর্তন হতে পারে একাধিক খাতেও। এর মধ্যে বিদেশি বিনিয়োগের বিষয়টিও রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

    বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অ্যানিমেশন থেকে নির্মাণক্ষেত্র, প্রায় সবেতেই বিদেশি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে নিয়ম শিথিল করার চেষ্টা করছে সরকার। এক্ষেত্রে করোনা পরিস্থিতিতে যে ভাবে কর্মসংস্থান কমেছে এবং চাকরি খুইয়েছেন বহু মানুষ, সেই কথা মাথায় রেখে এই ক্ষেত্রগুলিতে কর্মসংস্থান বাড়ানোর দিকেও নজর দেওয়া হচ্ছে। শহরে নির্মাণ, রাস্তা, হোটেল ও হাসপাতালের ক্ষেত্রে পার্টনারশিপের জন্য প্রস্তাব করা হতে পারে। যা এই মুহূর্তে আলোচনার পর্যায়ে রয়েছে। তবে, এতেও নিয়ম যথেষ্ট শিথিল করা হবে বলে মনে করা হচ্ছে। জানা যাচ্ছে, সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে, অ্যানিমেশন, ভিস্যুয়াল এফেক্ট, গেমিং ও কমিক্স সেক্টরে ১০০ শতাংশ বিদেশি বিনিয়োগের ব্যবস্থা করা হবে। আর কোন ক্ষেত্র এই তালিকায় পড়বে তা জানা যাবে ১ তারিখ বাজেট পেশ হলে। প্যানডেমিকের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে ইতিমধ্যেই একাধিক পদক্ষেপ করা হয়েছে তবে, এ বিষয়ে আরও গুরুত্বপূর্ণ ব্যবস্থা নেওয়া বাকি রয়েছে। মনে করা হচ্ছে, তার মধ্যে LLP-গুলিকে বিনিয়োগে যুক্ত করা অর্থাৎ বিনিয়োগের পথ তৈরি করে দেওয়া অন্যতম। আসন্ন বাজেটে সেই দিকেও জোর দেওয়া হতে পারে। ২০২২-এর মধ্যে ভারতে ৭৭৭ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের প্রয়োজন রয়েছে। যদিও, এ বিষয়ে জানতে অর্থমন্ত্রকের মুখপাত্রকে ফোন করা হলে, তিনি উত্তর দেননি। বর্তমানে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের নির্মাণ ক্ষেত্রে বিনিয়োগে বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলতে হয়। যেমন-তিন বছরের লক ইন পিরিয়ড। সরকারি তথ্য বলছে, এপ্রিল ২০২০ থেকে সেপ্টেম্বর ২০২০ পর্যন্ত সময়ে নির্মাণক্ষেত্রে বিদেশি বিনিয়োগ হয়েছে ২৫.৭ বিলিয়ন ডলার। এক্ষেত্রে বিনিয়োগের নিয়মে পরিবর্তন আনলে ২০২২-এর মধ্যে ১০০টি স্মার্ট সিটিতে হাউজিং বানানোর লক্ষ্য পূরণ করতে আরও এক ধাপ এগোবে মোদি সরকার। পাশাপাশি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, LLP-গুলিকে বিনিয়োগে সুযোগ করে দিলেও অর্থনীতি চাঙ্গা করতে সুবিধে হবে সরকারের। এবং LLP-গুলির বিনিয়োগের ফলে বিদেশি বিনিয়োগও শিথিল হবে।
    Published by:Akash Misra
    First published: