'মোদিজি ভগবান রাম হলে অমিত শাহ হনুমান,' বললেন বিজেপি নেতা শিবরাজ

'মোদিজি ভগবান রাম হলে অমিত শাহ হনুমান,' বললেন বিজেপি নেতা শিবরাজ
শিবরাজ সিং

ভোপালে একটি অনুষ্ঠানে সংবাদ সংস্থাকে শিবরাজ বলেন, 'বিশ্বের কোনও শক্তি সিএএ আটকাতে পারবে না৷ মোদিজি এমন একজন প্রধানমন্ত্রী, যিনি হুমকিতে ভয় পান না৷ যদি নরেন্দ্র মোদি ভগবান রাম হন, তা হলে অমিত শাহ হলেন ভগবান হনুমান৷'

  • Share this:

#ভোপাল: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি হলেন ভগবান রাম৷ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ হলেন হনুমান৷ মোদি-শাহ জুটির এ ভাবেই স্তূতি গাইলেন মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান৷ একই সঙ্গে তাঁর দাবি, পৃথিবীর কোনও শক্তি সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন লাগু আটকাতে পারবে না৷ কারণ নরেন্দ্র মোদি হলেন সিংহ৷ তিনি কোনও হুমকিতে ভয় পান না৷

ভোপালে একটি অনুষ্ঠানে সংবাদ সংস্থাকে শিবরাজ বলেন, 'বিশ্বের কোনও শক্তি সিএএ আটকাতে পারবে না৷ মোদিজি এমন একজন প্রধানমন্ত্রী, যিনি হুমকিতে ভয় পান না৷ যদি নরেন্দ্র মোদি ভগবান রাম হন, তা হলে অমিত শাহ হলেন ভগবান হনুমান৷'

নাগরিকত্ব আইন আনার জন্য গত মাসে জয়পুরে নরেন্দ্র মোদিকে ঈশ্বরের সঙ্গে তুলনা করেন শিবরাজ৷ যদিও গোটা দেশেই চলছে সিএএ বিরোধী বিক্ষোভ৷ পশ্চিমবঙ্গ, রাজস্থান, কেরল ও পঞ্জাবে সিএএ বিরোধী রেজলিউশন পাস হয়েছে বিধানসভায়৷

রাজ্য বিধানসভায় সর্বসম্মত ভাবে পাস হয়ে গিয়েছে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বিরোধী প্রস্তাব৷ এই প্রস্তাব পাসে কোনও ভোটাভুটি হল না৷ সিএএ বিরোধী প্রস্তাবে সমর্থন জানিয়েছে বাম ও কংগ্রেস৷

এ দিন সিএএ বিরোধী প্রস্তাবে বিধানসভায় ভোটাভুটি চায় বিজেপি৷ কিন্তু বিজেপির দাবি মানেননি স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এর আগে সিএএ বিরোধী প্রস্তাব প্রথম পাশ হয় কেরল বিধানসভায়৷ তারপর রাজস্থান ও পঞ্জাবেও বিধানসভায় পাস হয়৷ তামিলনাড়ুতেও সিএএ বিরোধী প্রস্তাবের দাবি তুলেছে ডিএএমকে৷ বিধানসভার এর আগে বিশেষ অধিবেশনেই সিএএ-বিরোধী প্রস্তাব জমা দিয়েছিল বিরোধী বাম ও কংগ্রেস। কিন্তু সেই প্রস্তাবের বয়ান খারিজ করে সরকার পক্ষ আলাদা করে খসড়া প্রস্তাব তৈরি করে।

এ দিন বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, 'আমার বিরুদ্ধে লড়াই করতে প্রস্তুত বাম-কংগ্রেস৷ কিন্তু সিএএ মানতে পারছি না৷ যারা বিদ্বেষ ছড়াচ্ছে, তাদের সমর্থন করি না৷ সিএএ সভ্যতার লজ্জা৷ গায়ের জোরে আইন করা যায় না৷ অভিনন্দন যাত্রা আসলে বিসর্জন যাত্রা৷ এনপিআর সম্পূর্ণ অসাংবিধানিক৷ সিএএ-এনআরসি মৃত্যুফাঁদ৷' এরপরেই বাম-কংগ্রেসকে মমতার বার্তা, 'আমার সঙ্গে লড়াইয়ের সময় পাবেন৷ সিএএ-র বিরুদ্ধে আসুন সবাই এক হয়ে লড়ি৷' সরকারি তরফে প্রস্তাব পেশ করেন পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের।

First published: January 30, 2020, 2:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर