• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • I LOVE MEN BUT THATS NOT A CRIME A GAY MAN SHARES HIS STRUGLE AFTER KNOWING HIS SEXUAL IDENTITY

Section 377: মেয়ে নয়, পুরুষদেরই ভালবাসতাম, মা-বাবা ভাবত আমি অপরাধী...

Photo Source: News 18 Hindi

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: তখন আমার ক্লাস নাইন ৷ কো-এড স্কুলে পড়তাম ৷ স্বপ্নের প্রেমিকাকে প্রেমের চিঠি লিখতেই ব্যস্ত ক্লাসের ছেলেরা ৷ ঠিক সেই সময়ই বুঝতে পেরেছিলাম ৷ মেয়ে নয় ৷ ছেলেদের প্রতিই আমার মনে এক অজানা আকর্ষণ রয়েছে ৷ তবে, সেই বিষয়টি বুঝতে পেরে চেপে গিয়েছিলাম গোটা বিষয়টি ৷ কাউকেই বলিনি সেটা ৷ তাই একটা সময় আমার বন্ধুরা যখন মেয়েদের পিছনে ছুটত ৷ তখন আমি ছেলেদের বিষয়ে ভাবতাম ৷ তবে, সেই বিষয়টা এখন যতটা সহজভাবে বলছি ৷ ততটা সহজ ছিল না আমার পরবর্তী জীবনটা ৷

    গে মানে আদতে কি ? সেই নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে অনেক ভুল ধারণা রয়েছে ৷ কেউ কেউ বইপত্রের দুনিয়াতেই থাকতে ভালবাসেন ৷ আবার কেউ খেলাধুলা নিয়েও থাকতে ভালবাসেন ৷ গে মানেই যে তাদের চলাফেরা একেবারে মেয়েদের মতই হতে হবে ৷ আদতে সেটারও কোনও মানে নেই ৷

    স্কুলের বন্ধুদেরকে কোনওরকমে পাশ কাটিয়ে যেতে পেরেছিলাম ৷ কারণ আমি শুধু একা নই ৷ আমার মতই স্কুলে আরও অনেকেই ছিল ৷ যারা আমার মতই গে ৷ কিন্তু সবথেকে সমস্যায় পড়েছিলাম মা বাবকে আমার মনের কথা জানাতে ৷ বয়স বাড়তেই বিয়ের জন্য চাপ দিতে শুরু করে মা ৷ কিন্তু আমি বেঁকে বসি ৷ জানাই, কোনও মেয়েকে আমি কোনওদিন ভালবাসতে পারব না ৷ সুখী করতে পারব না ৷ কারণ আমি কোনও মেয়েকে নয় ৷ ছেলেদেরকে ভালবাসতে পারব আমি একমাত্র ৷ আমার কথা শুনে অসুস্থ হয়ে পড়ে মা ৷ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় মা-কে ৷ আমার বাবাও আমাকে আত্মহত্যা করার হুমকি দেয় ৷ কারণ তারা ভাবছিলেন কোনও অপরাধপ্রবণ কাজে হয়তো আমি জড়িয়ে পড়েছি ৷ কিন্তু আমি হাজার বার বোঝানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছি ৷ একসময় হাল ছেড়ে দিই ৷ আর আমার বাবা মা আমাকে জোড় করে তাদের পছন্দের এক মেয়ের সঙ্গে বিয়ে দিয়ে দেয় ৷ তবে, সেই বিয়ে বেশিদিন টেঁকেনি ৷ চার মাস ৷ তারপরই আমার স্ত্রী আমাকে ডিভোর্স দেয় ৷

    এরপর আমার মা বাবা আমাকে নিয়ে আরও চিন্তায় পড়ে যান ৷ কারণ ছেলের বিয়ে নিয়ে পরিবারের অনেক স্বপ্ন থাকে ৷ ছেলে বিয়ে করবে ৷ পুত্র সন্তানের জন্ম হবে ৷ বংশ রক্ষা পাবে ৷ কিন্তু কি সমস্যা ৷ সেকথা আমি মুখ ফুটতে বলতে পারিনি বাবা মা-কে ৷ সমস্যার সমাধান করার জন্য চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান তাঁরা ৷ পরীক্ষা নিরীক্ষা করার পর চিকিৎসক আমাকে ডিপ্রেশনের ওষুধ দেয় ৷ আর তাতে আমি আরও বেশি অসুস্থ হয়ে পড়ি ৷

    দীর্ঘ লড়াইয়েই পরে অবশেষে সমকামিতাকে আইনি স্বীকৃতি দিল সুপ্রিম কোর্ট । এর আগে ২০১৩ সালে ৩৭৭-র পক্ষে রায় দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট যার পরেই দায়ের হয়েছিল অনেকগুলি জনস্বার্থ মামলা । শেষ পর্যন্ত ৩৭৭ ধারার বিপক্ষেই রায় দিল শীর্ষ আদালত ৷ সুপ্রিম কোর্টের রায় শোনার পরই গড়গড় করে নিজের ছাত্র জীবনের স্মৃতি বলে যাচ্ছিলেন আকাশ ৷ কখনও কখনও চোখের কোনে জলও দেখা যাচ্ছিল তার ৷ আকাশের মত একটাই ৷ খুন করিনি, কাউকে কিডন্যাপ করিনি ৷ তাহলে কেন লুকিয়ে থাকব আমি ? কিন্তু গে হওয়ার জন্য আমার জীবনের একটি বড় সময় একেবারে নষ্ট হয়ে গিয়েছে ৷ কখনও বিয়ে ভেঙেছে ৷ কখনও আমার পরিবার আমাকে ভুল বুঝে সরে গিয়েছে ৷ কিন্তু একসময় তারা বুঝতে পারেন ৷ যার জন্য আজ আমি বাড়ি ছেড়ে আমার নিজের মত জীবন কাটাই ৷ আত্মীয় স্বজন ছেড়ে আজ আমি ভাল আছি ৷ দূর থেকেই আমার মা বাবা আমাকে আশীর্বাদ করেন ৷

    তবে, এখন শান্তি একটাই ৷ আর কখনও কেউ এভাবে পিছিয়ে থাকবে না ৷ গে কিংবা লেসবিয়ান হওয়ার কারণে কেউ আজ সমাজে পিছিয়ে থাকবে না ৷ নিজের মত জীবন কাটাতে পারবে সকলে ৷

    প্রতিবেদক: কল্পনা শর্মা(News 18 Hindi)

    আরও পড়ুন: Section 377: বাড়বে সামাজিক সমস্যা সঙ্গে নানান জটিলতা, ৩৭৭ প্রসঙ্গে সুব্রহ্মণ্যম স্বামী

    First published: