এই ঘটনা থেকে শিক্ষা নেওয়া উচিত দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ পুলিশের: মায়াবতী

এই ঘটনা থেকে শিক্ষা নেওয়া উচিত দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ পুলিশের: মায়াবতী
বিএসপি সুপ্রিমো মায়াবতী (ফাইল চিত্র)
  • Share this:

#নয়াদিল্লি: হেফাজত থেকে পালাতে গিয়ে পুলিশের গুলিতে মৃত্যু হল হায়দরাবাদ গণধর্ষণ ও খুনের ঘটনায় ৪ অভিযুক্তের। এই ঘটনার পর গোটা দেশ থেকে পর এক প্রতিক্রিয়া আসতে থাকে এই এনকাউন্টার ঘিরে। এই বিষয়টি নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন উত্তর প্রদেশের বিএসপি নেত্রী মায়াবতীও।

তিনি বলেছেন, উত্তর প্রদেশে মহিলাদের ওপর একের পর এক অত্যাচার অপরাধের ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু রাজ্য সরকার সেখানে ঘুমোচ্ছে। এই ঘটনা থেকে শিক্ষা নেওয়া উচিত দিল্লি ও উত্তরপ্রদেশ পুলিশের।

অভিযুক্তদের এ দিন ভোরে যেখানে তারা ওই মহিলা চিকিত্‍সককে গণধর্ষণ করেছিল, সেখানে নিয়ে যাওয়া হয়৷ অভিযুক্তরা পালানোর চেষ্টা করে৷ পুলিশ তাদের গুলি করে৷ ৪ জনেরই মৃত্যু হয়েছে৷

হায়দরাবাদ পুলিশ জানিয়েছে, এ দিন ভোরে টনার পুনর্বিশ্লেষণের জন্য ৪ অভিযুক্তকেই ঘটনাস্থলে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেখানে পুলিশের হেফাজত থেকে পালানোর চেষ্টা করে অভিযুক্তরা৷ পুলিশ গুলি করতে বাধ্য হয়৷

মৃত অভিযুক্তরা হল, মহম্মদ (২৬), জল্লু শিবা (২০), জল্লু নবীন (২০) ও চিন্তাকুন্টু চেন্নাকেসাভুলু (২০)৷ এদেন ৩০ নভেম্বর গ্রেফতার করেছিল পুলিশ৷ এক মহিলা চিকিত্‍সককে ধর্ষণ করে খুন করে দেহ জ্বালিয়ে দেয় এরা৷ পুলিশের কাছে নিজেদের দোষ কবুল করে ৪ জনেই৷ চেরাপল্লি সেন্ট্রাল জেলে ৪ জন বিচারাধীন বন্দি ছিল৷

গত ২৮ নভেম্বর হায়দরাবাদে এক মহিলা চিকিত্‍সকের দগ্ধ দেহ উদ্ধার হয়৷ ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ৷ পুলিশের কাছে দোষ স্বীকার করে ৪ জনই৷

First published: 12:00:51 PM Dec 06, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर