ট্রাক্টর মিছিলে আহত পুলিশকর্মীদের হাসপাতালে গিয়ে দেখলেন অমিত শাহ

ট্রাক্টর মিছিলে আহত পুলিশকর্মীদের হাসপাতালে গিয়ে দেখলেন অমিত শাহ
বেশ কয়েকজন চিকিৎসাধীন পুলিশকর্মীর সঙ্গে এদিন কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের স্বাস্থ্যের অবস্থা জানেন।

বেশ কয়েকজন চিকিৎসাধীন পুলিশকর্মীর সঙ্গে এদিন কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের স্বাস্থ্যের অবস্থা জানেন।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: সাধারণতন্ত্র দিবসে কৃষকদের ট্র্যাক্টর মিছিলে যে পুলিশকর্মীরা আহত হন তাঁদের বৃহস্পতিবার দেখতে গেলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এই পুলিশকর্মীদের স্বাস্থ্যের অবস্থা এখন কেমন তা জানতেই এদিন দিল্লির সুশ্রুত ট্রমা সেন্টারে যান তিনি।

    অমিত শাহ টুইট করে বলেন, "দিল্লির পুলিশকর্মীদের সঙ্গে দেখা করছি। আমরা তাঁদের সাহসের জন্য গর্বিত।" বেশ কয়েকজন চিকিৎসাধীন পুলিশকর্মীর সঙ্গে এদিন কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের স্বাস্থ্যের অবস্থা জানেন।

    এদিন হাসপাতালে অমিত শাহের সঙ্গে যান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব অজয় ভাল্লা ও দিল্লি পুলিশ কমিশনার এসএন শ্রীবাস্তব। এদিন সুশ্রুত ট্রমা সেন্টার ছাড়াও তীর্থ রাম হাসপাতালেও পুলিশকর্মীদের দেখতে যান অমিত শাহ।


    এখনও পর্যন্ত সাধারণতন্ত্র দিবসে রাজধানীর অশান্তিতে ৪০০ জন পুলিশকর্মীর আহত হওয়ার খবর জানা গিয়েছে। বুধবার দিল্লি পুলিশ কমিশনার এস এন শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন এই ঘটনায় যে কৃষক নেতারা হিংসা ছড়িয়েছেন তাঁদের কাউকে ছাড়া হবে না। এক সাংবাদিক বৈঠকে দিল্লি পুলিশ কমিশনার এসএন শ্রীবাস্তব বলেছেন, এই হিংসা থামানোর জন্য নানারকম উপায় ছিল পুলিশ কর্মীদের কাছে। কিন্তু তাঁরা সংযম দেখিয়েছেন। তবে এবার কাউকে ছাড়া হবে না।

    তিনি জানিয়েছেন, কৃষকদের সঙ্গে যে চুক্তি হয়েছিল সাধারণতন্ত্র দিবসে ট্রাক্টর মিছিল নিয়ে, সেই চুক্তি রাখেননি কৃষকরা। পুলিশ কমিশনারের কথায় প্রত্যেক কৃষক নেতা এই ঘটনার জন্য দায়ী। তিনি বলছেন, "আমরা এটিকে খুব গুরুত্বের সঙ্গে দেখছি। আমাদের কাছে ভিডিও ফুটেজ রয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে কারা হিংসা ছড়াচ্ছে। ফেশিয়াল রিকগনিশন সিস্টেমের মাধ্যমে সনাক্ত করা হবে। তাদের সকলের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করা হবে এবং গ্রেফতার করা হবে। কাউকে ছাড়া হবে না।"

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: