• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • সরকার সিদ্ধান্ত না নিলে এবার বড় পদক্ষেপ, হুঁশিয়ারি কৃষকদের

সরকার সিদ্ধান্ত না নিলে এবার বড় পদক্ষেপ, হুঁশিয়ারি কৃষকদের

আন্দোলনে মিশেছে মাওবাদী, দেশদ্রোহীরা৷ সতর্ক করল সরকার৷ Photo-File

আন্দোলনে মিশেছে মাওবাদী, দেশদ্রোহীরা৷ সতর্ক করল সরকার৷ Photo-File

৪ জানুয়ারি আবার এই বিষয়ে কেন্দ্রের সঙ্গে আলোচনায় বসার কথা রয়েছে কৃষকদের। আর তার আগেই শুক্রবার হুঁশিয়ারি দিলেন কৃষক সংগঠনের নেতারা।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: কেন্দ্রের তিন কৃষি আইন নিয়ে এখনও কোনও রফা সূত্র মেলেনি। দিল্লির সিংঘু সীমান্তে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন বিভিন্ন প্রান্তের কৃষকরা। ৪ জানুয়ারি আবার এই বিষয়ে কেন্দ্রের সঙ্গে আলোচনায় বসার কথা রয়েছে কৃষকদের। আর তার আগেই শুক্রবার হুঁশিয়ারি দিলেন কৃষক সংগঠনের নেতারা। জানিয়ে দিলেন, সোমবারের বৈঠকে কোনও সঠিক সিদ্ধান্তে সরকার না এলে তাঁরা বড় পদক্ষেপ করবেন।

    কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমর যদিও দাবি করেছেন যে ষষ্ঠ বৈঠকে সমস্যার ৫০ শতাংশ সমাধান হয়ে গিয়েছে। যদিও কৃষি আইন প্রত্যাহারের বিষয়ে এখনও কিছুই এগোয়নি। আর তাই পরবর্তী বৈঠকের আগে কৃষকনেতারা কড়া ভাষায় জানালেন, এবার সমাধান না হলে আগামী ৬ জানুয়ারি বড় পদক্ষেপ করবেন তাঁরা।

    ভারতীয় কিসান ইউনিয়ন-এর সদস্য যুধবীর সিং বলছেন, "সরকার কৃষকদের গুরুত্ব দিচ্ছে না। শাহিনবাগ আন্দোলনকারীদের সরকার সরিয়ে দিতে পেরেছিল। তাঁরা ভাবছেন আমাদের সঙ্গেও একই কাজ করতে পারবে। কিন্তু সেই দিনটা কখনও আসবে না। ৪ জানুয়ারি সরকার যদি সিদ্ধান্ত না নেয় তাহলে কৃষকদেরই সিদ্ধান্ত নিতে হবে।"

    হুঁশিয়ারি দিয়ে কৃষক নেতারা জানিয়েছে রফা না মিললে হরিয়ানায় সব টোল প্লাজা ফ্রি থাকবে। সমস্ত পেট্রোল পাম্প ও মল বন্ধ থাকবে। এছাড়াও হরিয়ানা রাজস্থান সীমান্তে যে আন্দোলন চলছে তার আরও বিস্তার হবে, যদি কোনও সমাধান না হয়।

    প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যেই সরকারের সঙ্গে ৬টি বৈঠক সেরেছেন কৃষকরা। যদিও প্রথম পাঁচটি বৈঠকে কোনও সমাধান হয়নি। ষষ্ঠ বৈঠকের পরে কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী বলেছেন কৃষকদের দুটি দাবি মেনে নেওয়া হয়েছে। যদিও কৃষি আইন বাতিল না হওয়া অবধি কৃষকরা নিজেদের লক্ষ্যে অনড় থাকবেন বলে জানিয়ে দিয়েছেন।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: