Home /News /national /

পালঘর লোকসভা উপনির্বাচনে বিজেপির জয় কি দাঁড়ি টানবে শিবসেনার সঙ্গে দীর্ঘদিনের বন্ধুত্বে ?

পালঘর লোকসভা উপনির্বাচনে বিজেপির জয় কি দাঁড়ি টানবে শিবসেনার সঙ্গে দীর্ঘদিনের বন্ধুত্বে ?

File Photo

File Photo

দেশজুড়ে গেরুয়া শিবিরের যে দাপট চলছিল ৷ তা এখন অনেকটাই স্তিমিত ৷ চার বছর পর মোদি-শাহের ম্যাজিক যে একেবারেই ফিকে হয়ে গিয়েছে, তা দেশজুড়ে ১০টি বিধানসভা এবং ৪টি লোকসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনেই স্পষ্ট ৷ কয়েক মাস পরেই লোকসভা নির্বাচন ৷

আরও পড়ুন...
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি:  দেশজুড়ে গেরুয়া শিবিরের যে দাপট চলছিল ৷ তা এখন অনেকটাই স্তিমিত ৷ চার বছর পর মোদি-শাহের ম্যাজিক যে কিছুটা ফিকে হয়ে গিয়েছে, তা দেশজুড়ে ১০টি বিধানসভা এবং ৪টি লোকসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনেই স্পষ্ট ৷ কয়েক মাস পরেই লোকসভা নির্বাচন ৷ সেই নির্বাচনের আগেই জোরদার ধাক্কা খেল বিজেপি ৷ চারটি লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে একমাত্র পালঘরে শিবসেনাকে হারিয়ে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে বিজেপি ৷ এই পরাজয়ে বিজেপির বহুদিনের রাজনৈতিক সুখ দু:খের সঙ্গী শিবসেনার এনডিএ সংসর্গ ত্যাগ করার জল্পনাকে খানিকটা হলেও উস্কে দিল ৷ কাজেই বলা যায়, পালঘরের লোকসভা আসনে জিতে মহারাষ্ট্রে মূলত ত্রিমুখী লড়াইয়ে নিজেদের ভিত আরও বেশি মজবুত করল বিজেপি ৷ অপরদিকে, পালঘরে শিবসেনার ভিত উপড়ে যাওয়ায় তারা যে আরও বেশী মরিয়া হয়ে উঠবে নিজেদের ক্ষমতা বাড়াতে ৷ সেই বিষয়টি নিশ্চিত ৷

    ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের উপরে যদি নজর রাখা যায় ৷ তাহলে উত্তরপ্রদেশের ৮০টি লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে ৭৩টি দখল করে নিয়েছিল বিজেপি ৷ পালঘর এবং ভান্ডারা গোন্ডিয়া আসনে জয় ছিনিয়ে নিয়েছিল বিজেপি ৷ কিন্তু সমাজবাদী পার্টি জিতেছিল ৩টি আসনে ৷ ২০১৭ সালের বিধানসভা নির্বাচনেও বহাল ছিল সেই গেরুয়া ঝড় ৷ কিন্তু সেই ঝড় এক ঝটকায় বড়সড় ধাক্কা খেয়েছে ৷ আর যার জেরে বিজেপির অন্দরেই কোন্দল প্রকট হয়েছে ৷ কারণ ২০১৮ সালে যে চারটি লোকসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন হয়েছে, তার মধ্যে ২টিই মহারাষ্ট্রের লোকসভা কেন্দ্র ৷ কিন্তু সেই দু’টির মধ্যে পালঘরে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর মোদি ব্রিগেডের সামনে ধরাশায়ী হয়েছে শিবসেনা ৷ যার জেরে মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবীশ এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নিতিন গড়করির কাজ নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে দলের অন্দরেই ৷

    প্রসঙ্গত, পালঘরে বিজেপির জয় নিশ্চিত হয়েছে ঠিকই ৷ কিন্তু তা হয়েছে বিজেপিরই পুরনো শরিক শিবসেনাকে হারিয়ে! ফলে বিজেপির এই সান্ত্বনা পুরস্কারও শেষ পর্যন্ত এনডিএ-র ঐক্যেই চিড় ধরাবে বলে মত রাজনৈতিক মহলের ৷ এই জয় শিবসেনার সঙ্গে বিজেপির সম্পর্কের ভাঙন আরও জোরদার করেছে তা বলাই যায় ৷ অপরদিকে, কংগ্রেসের সঙ্গে শিবসেনার সম্পর্ক আরও মজবুত হতে পারে বলে মত রাজনৈতিক মহলের একাংশের ৷

    প্রসঙ্গত, চলতি বছরের শুরুতেই ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে একলা লড়ার কথা ঘোষণা করেছিল শিবসেনা নেতৃত্ব ৷ গত তিন বছর ধরে বিজেপির সঙ্গে শিবসেনার সম্পর্ক খুবই খারাপ । বিজেপি বার বার শিবসেনাকে অবজ্ঞা করে চলেছে । যার জেরেই পুরোনো দুই শরিক দলের মধ্যেই বিচ্ছেদ ঘটে ৷ আর সেই দু’টি শরিক দলের মধ্যেই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই ‘দু:খজনক’ বলে আখ্যা দিয়েছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা ৷ একইসঙ্গে এই দুই শরিক দলের আবারও একসঙ্গে লড়াইয়ের পথ আরও সংকীর্ণ হল বলেই মত রাজনৈতিক মহলের ৷

    পালঘর লোকসভা উপনির্বাচনে বিজেপির জয় কি সহজভাবে নেবে শিবসেনা ? নাকি দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক বন্ধু বিজেপির সঙ্গেই লোকসভা নির্বাচনের আগেই পাকাপাকি বিচ্ছেদ হবে ! সেকথা বলবে সময় ৷

    First published:

    Tags: BJP, Palghar election, Shivsena

    পরবর্তী খবর